khabor online most powerful bengali news

ট্রেনে সামনে বসা সাদা যাত্রী গাল পাড়ে, হাড় কেঁপে ওঠে বই-কি !

নিশান চট্টোপাধ্যায় নিউ ইয়র্কে যখন প্রথম আসি সালটা তখন ২০১০। ডেনমার্কের গভীর একাকিত্ব ছেড়ে এ শহর নিতান্ত মন্দ ছিল না। বিমানবন্দরের সহাস্য শিখ ট্যাক্সিওলা বাড়ি পৌঁছে দিয়ে দাড়ির ফাঁকে হেসে বললেন, “ওয়েলকাম টু নিউ ইয়র্ক”। এ জিনিস ইউরোপে দুর্লভ। জীবনে এতদিন এক শহরে থাকার অভিজ্ঞতাও আমার এই প্রথম। আতঙ্কে ছিলাম, হাজারটা দ্বিধা দ্বন্দ্ব ছিল, মনে হত প্রতি মুহূর্তে ‘এ আমার নয়, এ বড়ো অচেনা, এ বড়ো পর’। বাড়িওলা রাশিয়ান, তার বৌ থাই, আমি ভারতীয়। ডেনমার্কের অভিজ্ঞতা আমাকে বলেছিল, সব চেয়ে বেশি সমস্যা হবে রান্নার গন্ধ নিয়ে, কিন্তু এখানেও চমক। আমার খাবারের গন্ধে তাদের অসুবিধা তো হতই না, প্রকারান্তরে আমার একা…

আরও পড়ুন

শ্রীনিবাস হত্যার পাঁচ দিন পর ট্রাম্প প্রশাসন বলল, ঘটনা খুবই উদ্বেগের

ওয়াশিংটন: আততায়ীর গুলিতে ভারতীয় ইঞ্জিনিয়ারের নিহত হওয়ার ঘটনার প্রায় পাঁচ দিন পর অবশেষে মুখ খুলল হোয়াইট হাউস। একটি বিবৃতিতে হোয়াইট হাউসের তরফ থেকে জানানো হয়েছে কানসাসের বারের ঘটনাটি খুবই উদ্বেগের। গত বুধবার কানসাসের একটি বারে আততায়ীদের গুলিতে খুন হন শ্রীনিবাস কুচিভোতলা, আহত হন তাঁর বন্ধু অলোক। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ালেও, এত দিন পর্যন্ত চুপচাপ ছিল হোয়াইট হাউস। যুক্তরাষ্ট্র জুড়ে ইহুদি সম্প্রদায়ের ওপর আক্রমণের ব্যাপারে সোমবার একটি বিবৃতি দিচ্ছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রেস সচিব সিন স্পাইসার। এই প্রসঙ্গেই কানসাসের ঘটনার কথা উল্লেখ করেন তিনি। তিনি জানান, ধর্মভিত্তিক এবং জাতিভিত্তিক অপরাধের কোনো জায়গা নেই মার্কিন মুলুকে। স্পাইসার জানান, “জন্মলগ্ন থেকেই নাগরিকদের ধর্মীয় স্বাধীনতাকে গুরুত্ব…

আরও পড়ুন

ভাঙতে পারে যুক্তরাষ্ট্রের উচ্চতম বাঁধ, দু’লক্ষ মানুষকে সরানোর নির্দেশ

সান ফ্রান্সিসকো: বন্যার মুখে ক্যালিফোর্নিয়া। ভেঙে যেতে পারে যুক্তরাষ্ট্রের উচ্চতম বাঁধ। বানভাসি হতে পারেন প্রায় দু’লক্ষ মানুষ। সান ফ্রান্সিসকো থেকে আড়াইশো কিলোমিটার দূরে অরোভিল লেকের ওপর রয়েছে ৭৭০ মিটার উঁচু এই অরোভিল বাঁধ। গত সপ্তাহে প্রবল বৃষ্টি হয় এই বাঁধ আর লেক সংলগ্ন এলাকায়। এর ফলে ক্রমে বাড়তে থাকে এই হ্রদের জল। কিন্তু তাতেই কোনো সমস্যা হত না যদি না বাঁধে ফাটল দেখা দিত। রবিবার দুপুরে, বাঁধে ফাটল লক্ষ করে কর্তৃপক্ষ। সেই সঙ্গে তারা দেখে ফাটল ক্রমশ বড়ো হচ্ছে। দ্রুত মেরামত না করলে ভেঙে যাবে, বানভাসি হবেন কাছাকাছি অবস্থিত প্রায় আটটি শহরের বাসিন্দা। স্থানীয় প্রশাসনকে খবর দেয় বাঁধ কর্তৃপক্ষ। শুরু…

আরও পড়ুন

মাসুদ আজহারের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারির প্রস্তাবে ফের বিরোধিতা চিনের

নিউ ইউর্ক: মাসুদ আজহারের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের জন্য রাষ্ট্রপুঞ্জে দরবার করল যুক্তরাষ্ট্র-সহ তিনটে দেশ। কিন্তু বাধা হয়ে দাঁড়াল চিন। গত বছর ডিসেম্বরে আজহারের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের জন্য রাষ্ট্রপুঞ্জে দাবি করেছিল ভারত, সে বারও তীব্র বিরোধিতা করেছিল চিন। মার্কিন প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, জানুয়ারির শেষ দিকে রাষ্ট্রপুঞ্জের নিষেধাজ্ঞা কমিটির কাছে মাসুদ আজহারের উপর নিষেধাজ্ঞা জারির প্রস্তাব এনেছিল যুক্তরাষ্ট্র। যুক্তরাষ্ট্রের এই প্রস্তাবকে সমর্থন করেছিল ব্রিটেন আর ফ্রান্স। প্রস্তাবে বলা হয়েছিল, মাসুদ আজহারের দল জঈশ-এ-মহম্মদ একটি জঙ্গিগোষ্ঠী। সেই দলের কোনো নেতা মুক্ত থাকতে পারেন না। সূত্রের খবর, যুক্তরাষ্ট্রের পেশ করা এই প্রস্তাব ‘হোল্ড’ করে দেয় চিন। ‘হোল্ড’ হচ্ছে ‘ব্লক’ করার আগের ধাপ। যদি…

আরও পড়ুন

৭টি মুসলিম-প্রধান দেশের নাগরিকের আমেরিকা প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা ট্রাম্পের

ওয়াশিংটন: কলমের কয়েকটা খোঁচায় প্রায় সাড়ে ১৩ কোটি মানুষের আমেরিকা যাওয়া আটকে দিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আপাতত ৯০ দিনের জন্য। ৭টি মুসলিম প্রধান দেশের নাগরিকদের জন্য জারি হল এই নিষেধাজ্ঞা। দেশগুলি হল ইরাক, ইরান, সুদান, লিবিয়া, সোমালিয়া, ইয়েমেন ও সিরিয়া। ভবিষ্যতে আরও দেশের নাম তালিকায় যুক্ত হতে পারে বলে জানিয়েছেন হোয়াইট হাউজের এক আধিকারিক। ট্রাম্পের শুক্রবারের এই নির্দেশ, ভবিষ্যতে আরও বড়ো নিষেধাজ্ঞার পথে যাওয়ার প্রথম পদক্ষেপ বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। এই সিদ্ধান্তের কারণ হিসেবে হোয়াইট হাউজের তরফে বলা হয়েছে, “আমেরিকাকে নিরাপদ রাখাই এই সিদ্ধান্তের লক্ষ্য” এবং তাঁরা “কোনো ঝুঁকি নিতে চাইছেন না”। এদিন উদ্বাস্তুদের আমেরিকায় ঢোকার ক্ষেত্রেও চার…

আরও পড়ুন

“আমরা অন্যদের সীমান্ত পাহারা দিয়েছি, নিজেদেরটা রক্ষা
করতে পারিনি”

ওয়াশিংটন: একটি বাইবেল, যেটি তাঁর মা তাঁকে দিয়েছিলেন। অন্য বইটি ব্যবহার করেছিলেন আব্রাহাম লিঙ্কন। ১৮৬১ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট পদে শপথ নেওয়ার সময়। এই দু’টি বই হাতে নিয়ে যখন ৪৫তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট শপথ নিচ্ছিলেন, তখন প্রতিবাদের চিহ্ন হিসেবে সেখানে ছিলেন না ৬০ জন ডেমোক্র্যাট সেনেটর। যদিও হিলারি ক্লিন্টন ছিলেন। তিনি শুনলেন, ট্রাম্প বলছেন, “আজকের দিনটি স্মরণীয় হয়ে থাকবে কারণ এই দিনটিতেই মার্কিন জনগণ তাঁদের দেশের শাসন ক্ষমতা ফিরে পেল”। বৃহস্পতিবারই বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামের মঞ্চে চিনা শিল্পপতি জ্যাক মা বলেছিলেন, মার্কিনিদের চাকরি কেউ চুরি করে নিয়ে যাচ্ছে না। সে দেশের প্রশাসন যুদ্ধ করে টাকা নয়ছয় করার জন্যই দেশের মানুষের চাকরি হচ্ছে না।…

আরও পড়ুন

আমেরিকায় চাকরি না থাকার জন্য দায়ী সে দেশের প্রশাসন: চিনা শিল্পপতি

দোভাস: ”চূড়ান্ত অনিশ্চিত এবং অস্থায়ী চরিত্রের অর্থনৈতিক বাজারে, সারা বিশ্বই তাকিয়ে আছে চিনের দিকে”, বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামের মঞ্চে চেয়ারম্যান ক্লাউস স্কোয়াব এভাবেই স্বাগত জানালেন চিনা প্রেসিডেন্টকে। আর সেই মঞ্চ থেকেই চিনের ধনকুবের শিল্পপতি জ্যাক মা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনৈতিক দুর্দশার জন্য দায়ী করলেন, সে দেশের কৌশলগত নির্বুদ্ধিতাকে। চিনা সংস্থা আলিবাবার প্রতিষ্ঠাতা, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে সরাসরি আক্রমণ করে বলেন, অহেতুক অন্য দেশের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে টাকা নয় ছয় করে সে দেশের প্রশাসন। নির্বাচনী প্রচার চালানোর সময় থেকেই চিনের বিরুদ্ধে নানা কটূক্তির অভিযোগ উঠেছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের বিরুদ্ধে। দেশের চাকরি শুধুমাত্র মার্কিন নাগরিকদের মধ্যেই সীমিত রাখার আশ্বাস দিয়ে ক্ষমতায় এসেছেন ট্রাম্প। এই প্রসঙ্গে…

আরও পড়ুন

‘আসন্ন বিপদ’ থেকে সতর্ক করলেও, দেশ সম্পর্কে আশা প্রকাশ ওবামার

শিকাগো: আট বছর আগে প্রেসিডেন্টের মসনদ দখল করার সময়ে ওবামা বলেছিলেন “হ্যাঁ, আমরা পারব।” আট বছর পর বিদায়ী ভাষণে দেশবাসীকে বললেন “সতর্ক থাকুন, ভীত নয়”। তাঁর স্পষ্ট ইঙ্গিত ছিল ডোনাল্ড ট্রাম্পের দিকে। জাতিবাদ, আর্থিক অসাম্য, রাজনৈতিক বিচ্ছিনতা, মুসলিম ও নারী বিরোধী অবস্থান এবং ভোটারদের ঔদাসীন্য। তবে ওবামা আশাবাদী, চূড়ান্ত মতাদর্শগত বিভেদেও জনগণের সক্রিয়তা বিভেদকে দূর করতে পারে। তৈরি করতে পারে ‘সেতু’। তিনি বলেন “মার্কিন জনগণই পারেন বৈষম্যের বিরুদ্ধে যে সমস্ত আইন রয়েছে তাকে ‘তুলে ধরতে’। যে সমস্ত মূল্যবোধ আমাদের রয়েছে তাকে দুর্বল হতে না দেওয়া হবে আমাদের কাজ।” এক ঘণ্টার ভাষণে ওমাবা কখনও স্মৃতিচারণ করেন তাঁর রাজত্বকালের, কখনও বা করেন…

আরও পড়ুন

♦ সিনেমাস্ক্রিনের সংখ্যায় আমেরিকাকে টপকে গেল চিন

বেজিং : দেশে মোট সিনেমাস্ক্রিনের সংখ্যার বিচারে চিন প্রথম বার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে টপকে গেল। বৃহস্পতিবার চিনের এসএআরএফটি-র (স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেশন অব প্রেস, পাবলিকেশন, রেডিও, ফিল্ম অ্যন্ড টেলিভিশন) ফিল্ম ব্যুরো একটি রিপোর্ট প্রকাশ করল। ওই রিপোর্টে বলা হয়েছে, ২০ ডিসেম্বর অবধি চিনের মূল ভূখণ্ডে সিনেমাস্ক্রিনের মোট সংখ্যা ৪০ হাজার ৯১৭টি। সেখানে মার্কিন দেশে এই সংখ্যাটা একটু কম। ৪০ হাজার ৭৫৯। এসএআরএফটি-র দেওয়া তথ্য বলছে, ২০১৬ সালে চিনে চলচ্চিত্র ব্যবসা খুবই উন্নতি করেছে। হিসেব অনুযায়ী এখানে চলতি বছরে প্রতি দিন গড়ে ২৬টি করে সিনেমা হল তৈরি হয়েছে। এই নতুন প্রেক্ষাগৃহগুলির মধ্যে ৮৫ শতাংশই থ্রিডি ছবি দেখাতে সক্ষম। বক্স অফিসে টিকিট বিক্রির পরিমাণের নিরিখে…

আরও পড়ুন

ফিদেল কাস্ত্রো: এক বর্ণময় চরিত্র

আদত নাম ফিদেল আলেখান্দ্রো কাস্ত্রো রুজ। জন্ম ১৩ আগস্ট ১৯২৬, কিউবার ব্রিয়ানে। হাবানা বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়াশোনার সময়ই মার্ক্সীয় ভাবধারায় আকৃষ্ট হন তিনি। ডোমিনিকান রিপাবলিক আর কলোম্বিয়ায় ডানপন্থী সরকারের বিরুদ্ধে বিদ্রোহে অংশ নেওয়ার পর, নিজের দেশে স্বৈরাচারী শাসক ফুলজেন্সিও বাতিস্তার বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ঘোষণা করেন তিনি। কিন্তু ১৯৫৩ সালের ২৬ জুলাই কিউবার সান্তিয়াগোর মোঙ্কাদা বারাকে সেই বিদ্রোহ ব্যর্থ হয়। এর ফলে কাস্ত্রোর জেল হলেও, অনেকের মতে কিউবার বিপ্লবের সেটাই ছিল শুরু।   এক বছর পর জেল থেকে ছাড়া পেয়ে মেক্সিকো পাড়ি দেন কাস্ত্রো। ভাই রাউল আর বিপ্লবী চে গুয়েভারাকে সঙ্গে নিয়ে তৈরি করেন ’২৬ জুলাই বিপ্লবী গোষ্ঠী’। বাতিস্তার বিরুদ্ধে ব্যর্থ বিদ্রোহের স্মরণেই এই…

আরও পড়ুন