khabor online most powerful bengali news

রেডস্টারের আরেক নেতা প্রদীপ সিংহ ঠাকুর ধৃত, ফের অবরোধ

ভাঙড়: বুধবার রাতে সিপিআই (এমএল) রেডস্টার নেত্রী শর্মিষ্ঠা চৌধুরীকে সিআইডি গ্রেফতার করার পরে পরেই গ্রেফতার করা হয়েছে রেডস্টারের সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ সিংহ ঠাকুরকেও। এ দিন রাতে প্রদীপবাবুকে গড়িয়া স্টেশন থেকে সিআইডি গ্রেফতার করে। জানা গিয়েছে, শর্মিষ্ঠার বিরুদ্ধে পুলিশ ১৪৭, ১৪৮, ১৪৯, ৩২৫, ৩২৬, ৩৩৩, ৩৫৩, ১৮৬, ৫০৬, ৩৭৯, ৪২৭ ধারা-সহ একগুচ্ছ মামলা রুজু করেছে। তাঁর বিরুদ্ধে দায়ের করা হয়েছে অনিচ্ছাকৃত খুন. নিরীহ গ্রামবাসীদের প্ররোচিত করার অভিযোগ-সহ একগুচ্ছ মামলা। শর্মিষ্ঠা চৌধুরী ও প্রদীপ সিংহ ঠাকুরকে ৮ দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে বারুইপুর মহকুমা আদালত। ওদের দুজনের সঙ্গেই গ্রেফতার করা হয়েছে জমি-জীবিকা, বাস্তুতন্ত্র ও পরিবেশ রক্ষা কমিটি-র এক সদস্যকে। তাঁরও ৮ দিনের…

আরও পড়ুন

উত্তপ্ত ভাঙড়

ভাঙড় : পাওয়ার গ্রিড স্টেশনের কাজ বন্ধের দাবিতে মঙ্গলবার অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে ভাঙড়। সোমবার থেকেই ফুঁসছিলেন গ্রামবাসীরা। খামারাইট গ্রামে ১০ হাজার মানুষের জমায়েত হয়। তার পর পুলিশ ২ জন আন্দোলনকারীকে গ্রেফতার করে। রাতভর পুলিশের অত্যাচার চলেছে, এই অভিযোগে মঙ্গলবার সকাল থেকেই আন্দোলনকারী জনতা ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। জনতা-পুলিশে খণ্ডযুদ্ধ বাধে। পরিস্থিতি সামাল দিতে প্রচুর পুলিশ নামানো হয়।  পুলিশের গাড়িতে ভাঙচুর হয়, আগুন লাগানো হয়। পুলিশের উপর ইটপাটকেল বৃষ্টি হয় বলে তাদের অভিযোগ। আন্দোলনকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ কাঁদানে গ্যাস ছোড়ে। পুলিশ গুলিও ছোড়ে বলে অভিযোগ।  গুলিতে মারা গিয়েছেন এক জন।   

আরও পড়ুন

গঙ্গাসাগর থেকে ফেরার পথে কচুবেড়িয়ার জেটিতে দুর্ঘটনায় মৃত ৬

গঙ্গাসাগর: সাগরমেলা থেকে ফেরার পথে দুর্ঘটনায় মৃত্যু হল ছয় জনের। মৃতরা সকলেই মহিলা বলে জানা গিয়েছে। সকলেরই বাড়ি উত্তরপ্রদেশে। রবিবার সন্ধ্যা নাগাদ ঘটনাটি ঘটে দক্ষিণ ২৪ পরগণার গঙ্গাসাগরের কচুবেড়িয়ার পাঁচ নম্বর জেটিতে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ঘটনাস্থলে যথেষ্ট আতঙ্ক ছড়িয়েছে। ঘটনাস্থলে রয়েছেন দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা পুলিশের কর্তারা। এ দিন সন্ধ্যায় গঙ্গাসাগর থেকে ঘরে ফেরার পথে পুণ্যার্থীরা কচুবেড়িয়ায় আসেন। মুড়িগঙ্গা নদী পার হওয়ার জন্য কচুবেড়িয়ার সব ঘাটেই ভিড় জমিয়েছিলেন পুণ্যার্থীরা। সন্ধ্যার পর মুড়িগঙ্গা নদীতে ভাটা পড়ায় প্রশাসনের তরফ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়, কয়েক ঘণ্টার জন্য ভেসেল পারাপার বন্ধ থাকবে।  কিন্তু সেই সময় মুড়িগঙ্গা পার হওয়ার জন্য কচুবেড়িয়ার এক থেকে পাঁচ নম্বর…

আরও পড়ুন

ক্ষতিপূরণ বা পুনর্বাসন নয়, পাওয়ার গ্রিড প্রকল্প বাতিল চান গ্রামবাসীরা

অর্ণব দত্ত : পাওয়ার গ্রিড প্রকল্প বাতিল নিয়ে প্রশাসন দীর্ঘ আটমাস পরে জমি জীবিকা বাস্ততন্ত্র ও পরিবেশ রক্ষা কমিটির সঙ্গে আলোচনায় বসার মৌখিক প্রতিশ্রুতি দিলেও দুই ২৪ পরগণার প্রায় ৫০টি গ্রামে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে প্রচার আন্দোলন আরও জোরদার করা হচ্ছে। স্থানীয় ২০টি গ্রামের বাসিন্দারা প্রাথমিকভাবে পরিবেশ আন্দোলনের সূত্রপাত করলেও তা খুব সম্প্রতি আরও ২৫ থেকে ৩০টি গ্রামে ছড়িয়ে পড়েছে বলে জানা গিয়েছে। দক্ষিণ ২৪ পরগণার জেলাশাসক যতক্ষণ পর্যন্ত না আন্দোলনকারীদের সঙ্গে আলোচনায় বসছেন, প্রচার আন্দোলন ততদিন চালিয়ে যাওয়া হবে বলে আন্দোলনকারীদের তরফে স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। বুধবার কমিটির তরফে আরও একটি বিষয় স্পষ্ট করে জানিয়ে বলা হয়েছে, আলোচনার বিষয়বস্তু অতি…

আরও পড়ুন

পরিবেশ বাঁচাতে বুধবার হাড়োয়া রোড অবরোধ করবেন ৫০ হাজার গ্রামবাসী

অর্ণব দত্ত : ফসল বাঁচাও, মাছ বাঁচাও, স্বাস্থ্য ও পরিবেশ বাঁচাও। পরিবেশরক্ষার দাবিতে উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনার ২০টিরও বেশি গ্রামের অন্তত পক্ষে ৫০ হাজার বাসিন্দা ১১ জানুয়ারি রাস্তা অবরোধ করতে চলেছেন। অবরোধ করা হবে হাড়োয়া রোড। বৃহস্পতিবার জমি ও বাস্তুতন্ত্র পরিবেশ রক্ষা কমিটির ব্যানারে রাস্তা অবরোধের সিদ্ধান্ত ঘোষণা করা হয়েছে। এ দিন মানবাধিকার সংগঠনগুলি, বিভিন্ন ক্ষেত্রের বিশিষ্ট গবেষকরা ও একটি নকশালপন্থী সংগঠনে্র কর্মীরা ইতিমধ্যে আন্দোলনকারীদের পাশে থাকার কথা জানিয়েছেন। এপিডিআর-এর পক্ষে সুজাভ ভদ্র, সিপিআইএম এল রেড স্টারের পক্ষে শর্মিষ্ঠা চৌধুরী, বিজ্ঞানী ও সমাজকর্মীদের একাংশ এ দিন কলকাতা প্রেস ক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলন করে ১১ জানুয়ারি রাস্তা অবরোধের সিদ্ধান্ত জানিয়ে দাবি…

আরও পড়ুন

এই শ্রাবণে বড়কাছারি

পাপিয়া মিত্র অবিশ্রাম বৃষ্টি মাথায় নিয়ে ভক্তের দল চলেছে উল্টো পথে। কাঁধে বাঁক, পরনে নতুন জামাকাপড়, মুখে ব্যোম ব্যোম তারক ব্যোম /বোলে ব্যোম তারক ব্যোম।  জয় বাবা বড়কাছারির জয়। উল্টো পথ এই কারণে, এ পথ তারকেশ্বরের নয়। এ পথ বড়কাছারির, দক্ষিণ ২৪পরগনার  ঠাকুরপুকুর থেকে প্রায় এগারো কিলোমিটার দূরে। কথায় বলে ভক্তের টানে ভগবান জাগ্রত হন। লোকমুখে ছড়িয়ে গিয়েছে বাবার থানের কথা। নানা মানুষের নানা সমস্যা। কেউ আসেন সন্তানের কামনায়, কেউ বা চাকরির জন্য, কেউ আবার বাড়ির সমস্যায়। কেউ কেউ জর্জরিত সাংসারিক সমস্যায়। বহু দূর থেকে নিজস্ব গাড়ি, ট্রেকার, ভ্যান রিকশায়, অটোতে  দলে দলে ভক্ত আসেন ভোর থেকে। এখানে পুজো দেওয়ার…

আরও পড়ুন