khabor online most powerful bengali news

অভিনয়ের ‘পরশপাথর’ আজও অম্লান বাঙালির মনে

‘পরশপাথর’ ছবিতে।  পাপিয়া মিত্র: ইনি হলেন সেই হেঁশেলবাড়ির হলুদ। রঙ দিয়ে ফুটিয়ে তুলছেন এক একটি পদ। বিয়েবাড়ি থেকে মৎস্যমুখ, অন্নপ্রাশন থেকে পৈতে। ষষ্ঠীপুজো থেকে প্রতিমা বিসর্জন – সবেতেই একমেবাদ্বিতীয়ম। এই হলুদ সব কাজেই লাগে। সকলের প্রয়োজনে লাগছেন। যেখানে এক লহমার দরকার, আবার যেখানে আগাগোড়া, সবেতেই তাঁর অভিনয় অনবদ্য। যেখানে গান তো গান, যেখানে নাচ তো নাচ, অকল্পনীয় উপযোগিতা। গোল গোল চোখ, এক মাথা টাক, অবিন্যস্ত দাঁত আর মোটা ভুঁড়ির মানুষটা হলেন তুলসী চক্রবর্তী। তিনি কমেডিয়ান না পূর্ণ অভিনেতা, সে সব প্রশ্ন দূরে থাক। নাকি তিনি এক জন দক্ষ বাদ্যশিল্পী! থিয়েটারে ঢোকার আগে তিনি শিখলেন পাখোয়াজ-হারমোনিয়াম-তবলা-খোল। বরং বলা ভালো, নিজের গুণপনাকে…

আরও পড়ুন

বাঙালির হয় ফেলু নয় Q, ওম পুরীরা হরিয়ানায় জন্মায়…

দেবারতি গুপ্ত এ এক অদ্ভুত সমাপতন। ঘুম থেকে উঠে টুইটারের দৌলতেই প্রথম খবরটা পেলাম গত ৬ জানুয়ারি। ওম পুরী সেদিন সকালেই মারা গেছেন। ডিজিটাল মিডিয়া হাতড়ে ওমের মৃত্যু সম্মন্ধে আরো কিছু খবর বের করার চেষ্টা করতে গিয়ে হোঁচট খেলাম আরেকটা খবরে। পরিচালক Q-র  ডবল ফেলুদা সিনেমা প্রসঙ্গে ‘F**k Manik’  মন্তব্য এবং তাতে প্রতিক্রিয়ার ঝড়। আমি ওম পুরী ভক্ত হিসেবে খবরটিতে পাত্তা না দিয়ে সেই দিনটা ওম সম্মন্ধীয় যাবতীয় খবরে নিজেকে নিয়োগ করলাম। ইউ টিউব হাতড়ে ওমের বিভিন্ন ছবির অংশ দেখে, সাম্প্রতিক কালে ওনার করা কিছু বিতর্ক সৃষ্টিকারী রাজনৈতিক মন্তব্য পড়ে এবং ফোন করে বন্ধু বান্ধবের কাছে ওম চর্চা শুরু করে…

আরও পড়ুন

ফেলুদা হয়তো পাশ করল এবার

পৃথা তা বাঙালির, পরনে গামছা হলেও এখনও গায়ে ঠাকুরদাদার শালটা রয়ে গেছে। তারই অন্যতম প্রধান নকসাগুলির মধ্যে একটি হল সত্যজিৎ আর তাঁর সৃষ্টি। আমাদের তর্কের বর্ম, ছেলেবেলার নস্টালজিয়া, সবটাই এখনও বেশ আষ্টেপৃষ্ঠে জড়িয়ে রয়েছে এটার ভিতর। হলে এবার প্রথম দিনেই বেশ কিছু কচিকাঁচার ভিড় দেখা গেল বাবা মায়ের সঙ্গে। মধ্যভাগে তাদের পাঁচ-ছ’ জনের সাথে আলাপ করে জানা গেল, ১ জন বাদে কারোর-ই পড়া নেই ফেলুদা । যে একজনের পরা তারও কমিকসে ইংরিজি ভাষায়। তবে হুগলি নদীর ওই পাড়ে যে অনেক বড় পশ্চিমবঙ্গ পড়ে আছে সেখানে অনেক বাংলায় ফেলুদা পড়া ছেলেপিলেও কিন্তু হলমুখো হয়েছিল এবারে। বার বার ছবির ইউএসপি করা হয়েছে…

আরও পড়ুন

শুক্রবার মুক্তি ‘ডবল ফেলুদা’, চলছে জোরদার প্রচার

কলকাতা : শুক্রবার মুক্তি পাচ্ছে সন্দীপ রায় পরিচালিত ছবি ‘ডবল ফেলুদা’। তার আগে স্বাভাবিক ভাবেই চলছে ভিন্ন কায়দায় ছবির প্রচার। সেই উপলক্ষে কখনও করা হচ্ছে সত্যজিত রায় সমগ্র রিডিং সেশন আবার কখনও ফেলুদা ফেস্টিভ্যাল। ছবির প্রচার করতে দলটি এসেছিল প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ে। সেখানে আয়োজিত ‘ফেলুদা ফেস্টিভ্যাল’ নামের একটি অনুষ্ঠানে ফেলুদা অর্থাৎ বেনুদা তথা সব্যসাচী চক্রবর্তী তাঁর নিজের জীবনের বেশ কিছু কথা বলেন। তিনি বলেন, “আমার উচ্চারণ খুব অষ্পষ্ট ছিল। তাই এক দিন এক প্রখ্যাত পরিচালক আমায় বলেছিলেন ১৫০ গ্রাম নারকেল দড়ি কিনে ওটা চিবিয়ে খেতে। পুরোটা ভেতরে চলে গেলে আবার তাকে বাইরে বের করে আনতে। এই করেই নাকি গলার স্বর এবং…

আরও পড়ুন

মুক্তি পেল ডবল ফেলুদার ট্রেলার

মুক্তি পেল সন্দীপ রায় পরিচালিত ‘ডবল ফেলুদা’ ছবির ট্রেলার। সত্যজিত রায়ের লেখা বিখ্যাত দুটি গল্প ‘সমাদ্দারের চাবি’ ও ‘গোলকধাম রহস্য’ নিয়ে ছবি ‘ডবল ফেলুদা’। ৫০ বছর হয়ে গেছে গোয়েন্দা প্রদোষচন্দ্র মিত্রের। তারই শ্রদ্ধার্ঘ্য ‘ডবল ফেলুদা’। ট্রেলার মুক্তি অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন সন্দীপ রায়, সব্যসাচী চক্রবর্তী, সাহেব চট্টোপাধ্যায়, গৌরব চক্রবর্তী এবং ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়। শুধু সন্দীপ রায় নয়, এই ছবির মধ্য দিয়ে সত্যজিত রায়কে শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন, ফেলুদা হয়ে ফিরে আসা সব্যসাচী চক্রবর্তীও।   ছবিটি নিয়ে ‘এক্সাইটমেন্টের’ পাশাপাশি তিনি মাত্রাতিরিক্ত ‘নার্ভাস’ও। সত্যজিত রায় যে নোট প্যাডে প্রথম ফেলুদার গল্প লেখা শুরু করেন, সেই লাল নোট প্যাডটি এই অনুষ্ঠানে সঙ্গে নিয়ে এসেছিলেন সন্দীপ রায়। ডবল ফেলুদার…

আরও পড়ুন