khabor online most powerful bengali news

খাদির ক্যালেন্ডার, ডায়েরিতে গান্ধীর বদলে মোদী, কর্মীদের প্রতিবাদ

নয়াদিল্লি: মহাত্মা গান্ধী আর নয়। এবার চরকা কাটার পালা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর। খাদি ভিলেজ ইন্ডাস্ট্রি কমিশনের ২০১৭ সালের দেওয়াল ক্যালেন্ডার এবং টেবল ডায়রিতে সেই কাজটাই করছেন তিনি। তবে গান্ধীজির মতো খালি গায়ে আর খেটো ধুতি পরে নয় সাদামাটা চরকা কাটছেন না তিনি। তিনি পরে আছেন কুর্তা-পাজামা-জহর কোট। তাঁর চরকাটিও খানিক আধুনিক চেহারার। ১৯২০-র দশকে ইংরেজদের বিরুদ্ধে অহিংস আন্দোলনের অংশ হিসেবে খাদি আন্দোলন শুরু করেছিলেন মোহনদাস করমচাঁদ গান্ধী। কেটেছিলেন চরকা। খাদি ভিলেজ ইন্ডাস্ট্রি কমিশনের চেয়ারম্যান বিনয় কুমার সাক্সেনা অবশ্য বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী মোদী “খাদির সবচেয়ে বড়ো ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর”।তিনি দেশে ও দেশের বাইরে খাদিকে জনপ্রিয় করছেন। এই ছবি পাল্টানোর প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার মধ্যাহ্নভোজের সময়…

আরও পড়ুন

সাহারা ডায়েরি কাণ্ডে মোদীর বিরুদ্ধে তদন্ত নয়: সুপ্রিম কোর্ট

নয়াদিল্লি: সাহারা ডায়েরি মামলায় যথেষ্ট তথ্য প্রমাণ নেই। ওই ডায়েরিতে প্রধানমন্ত্রী বা অন্য যে সব নেতার নাম পাওয়া গেছে, তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত করা যাবে না, জানিয়ে দিল শীর্ষ আদালত। নরেন্দ্র মোদী যখন গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন, তখন তাঁকে ঘুষ দেওয়া হয়েছিল সাহারা ও বিড়লা গোষ্ঠীর পক্ষ থেকে, এমন একটি অভিযোগ জানিয়ে তদন্তের আবেদন জানানো হয়েছিল শীর্ষ আদালতে। গত বছরের ১৪ নভেম্বর সেই আবেদন খারিজ করে দেয় সুপ্রিম কোর্ট। বুধবার ফের নতুন হলফনামা দাখিল করেন আইনজীবী প্রশান্ত ভূষণ। তিনি বলেন, সাহারা-বিড়লার ডায়েরি থেকে এটা প্রমাণ হয় না যে, মোদী ঘুষ খেয়েছেন। তাই একটি এফআইআর করে আদালতের তত্ত্বাবধানে তদন্ত হোক। কিন্তু সুপ্রিম কোর্ট…

আরও পড়ুন

কালো টাকার বিরুদ্ধে লড়াইতে সমর্থন: প্রবাসী ভারতীয়দের
ধন্যবাদ মোদীর

বেঙ্গালুরু: ১৪ তম প্রবাসী ভারতী দিবসের মঞ্চ থেকে কালো টাকার ইস্যুতে ফের বিরোধীদের আক্রমণ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তাঁর কথায় “কালো অর্থনীতি ভারতীয় সমাজ ও রাজনীতিকে ভেতর থেকে নষ্ট করে দিচ্ছে”, অথচ “কালো টাকার রাজনৈতিক পূজারিরা” সরকারের কালো টাকা বিরোধী অবস্থানকে ‘জনবিরোধী’ তকমা দিচ্ছেন। এদিন বেঙ্গালুরুর সভায়, কালো টাকার বিরুদ্ধে লড়াইতে সরকারের পাশে থাকার জন্য প্রবাসী ভারতীয়দের ধন্যবাদ জানান প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, প্রবাসী ভারতীয়রা প্রতি বছর দেশের অর্থনীতিতে ৬৯ বিলিয়ন ডলার যুক্ত করেন। “উন্নয়নের উদ্দেশে আমাদের যাত্রার মূল্যবান সঙ্গী” বলে প্রবাসীদের চিহ্নিত করেন মোদী। প্রবাসে তাদের অধিকার রক্ষায় সরকার সদা সচেষ্ট বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী। এদিনের সভায় মোদী প্রবাসীদের অনুরোধ করেন,…

আরও পড়ুন

ব্যাঙ্কিং পরিষেবা কবে স্বাভাবিক হবে, জবাব দিলেন না মোদী

নয়াদিল্লি: কালো টাকা উদ্ধারের জন্য পুরোনো ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত ঘোষণা করে দেশবাসীর কাছে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার জন্য ৫০ দিন সময় ছেয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী। সেটা ছিল ৮ নভেম্বর সন্ধ্যা। ৫৩ দিনের মাথায় ফের জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিলেন মোদী। কিন্তু টাকা তোলার লাইন কবে শেষ হবে বা টাকা তোলার ঊর্ধ্বসীমা কবে দূর হবে, সে সব কোনো প্রশ্নেরই জবাব পেলেন না সাধারণ মানুষ। শুধু বললেন,  যতটা তাড়াতাড়ি সম্ভব পরিস্থিতি যাতে স্বাভাবিক হয়, সে ব্যাপারে সরকার সচেষ্ট এবং ব্যাঙ্কগুলিকে উদ্যোগী হতে বলেছেন। কালো টাকার বিরুদ্ধে দেশবাসী ৫০ দিন ধরে যে ‘আত্মত্যাগ’ স্বীকার করেছে এবং ‘ধৈর্যের’ পরিচয় দিয়েছে, সে জন্য তাদের বহুবার…

আরও পড়ুন

দশেরায় জেএনইউ-তে প্রধানমন্ত্রীর কুশপুতুল দাহ নিয়ে রিপোর্ট চাইল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক

শুধু প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নয়, দশেরায় জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ে কুশপুতুল পোড়ানো হয় বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ, নাথুরাম গডসে, মালেগাঁও বিস্ফোরণে অভিযুক্ত স্বাধী প্রজ্ঞা এবং যোগগুরু বাবা রামদেবের। বিশ্ববিদ্যালয়ের যে সব ছাত্ররা এই ঘটনায় যুক্ত ছিলেন, তাঁরা মূলত কংগ্রেসের ছাত্র সংগঠন এনএসইউআই-এর সদস্য। দিল্লি পুলিশের কাছে সেই ঘটনারই রিপোর্ট চেয়ে পাঠাল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে ‘দেশবিরোধী শ্লোগান’-এর অভিযোগ ঘিরে কয়েকমাস আগেই কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গে সম্পর্ক খারাপ হয়েছিল বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের। গ্রেফতার হন ছাত্র সংসদের সভাপতি কানহাইয়া কুমার। গ্রেফতার হন অনির্বাণ ভট্টাচার্য, উমর খালিদ। তারপর এদিনের রিপোর্ট চাওয়ার ঘটনায় ফের উত্তেজনার পারদ চড়তে পারে বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। ‘বর্তমান সরকারের প্রতি…

আরও পড়ুন

বিশ্বের সব থেকে বড় কেক প্রধানমন্ত্রী মোদীর জন্মদিনে

নেতাদের নিয়ে সমর্থকদের আবেগ-উচ্ছ্বাস গোটা দুনিয়াতেই নতুন কিছু নয়। ভারতের মত তৃতীয় বিশ্বের দেশে এই ধরনের উচ্ছ্বাস আরও বেশি করেই চোখে পড়ে নানা সময়ে, বিভিন্ন উপলক্ষ্যে। সেই ধারাতেই যুক্ত হল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর জন্মদিন। মোদীর ৫৬ ইঞ্চি ছাতি নিয়ে যে চর্চার শুরু, তা মোদীর রকমারি ফ্যাশন স্টেটমেন্টের হাত ধরে মোদী স্যুট, মোদী ব্লেজার, মোদী কুর্তায় পৌঁছে গিয়েছে সেই কবেই। আর এখন তো মোদী ডলের বাজার। এবার মোদীর জন্মদিনে তৈরি হল মোদী কেক। না, ঠিক বলা হল না। এমন নামের কোনও কেক বাজারে আসেনি, আসার কথাও হয়নি। কিন্তু যেটা ঘটেছে, তা হল সুরাটের অতুল বেকারি ও শক্তি ফাউন্ডেশন নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী…

আরও পড়ুন