khabor online most powerful bengali news

ইরাক বাদে ৬টি মুসলিম দেশের মানুষের আসা নিষিদ্ধ করলেন ট্রাম্প

ওয়াশিংটন: আদালতের দৃষ্টিভঙ্গি খুব একটা বদলাতে পারল না প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মনোভাব। কিছু মুসলিম-প্রধান দেশের নাগরিকদের মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ নিষিদ্ধ করে ফের এক প্রস্ত নির্দেশনামা জারি করলেন প্রেসিডেন্ট। তাতে পরিবর্তন শুধু একটিই – ইরাককে ছাড়। আগের তালিকার বাকি ছ’টি দেশকে নতুন তালিকাতেও রাখা হয়েছে। এই দেশগুলি হল ইরান, সিরিয়া, ইয়েমেন, সুদান, লিবিয়া এবং সোমালিয়া। নতুন আদেশ ১৬ মার্চ থেকে কার্যকর হবে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে সন্ত্রাসবাদের হাত থেকে নিরাপদ দূরত্বে রাখার জন্য এই কার্যনির্বাহী নির্দেশ জারি করা হয়েছে বলে ট্রাম্প প্রশাসন যুক্তি দিচ্ছে। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের অন্যতম সহযোগী কেলিয়ান কনওয়ে বলেছেন, ইরাক বাদে আগেকার তালিকাভুক্ত ৬টি দেশের নাগরিকদের ওপর ৯০ দিনের নিষেধাজ্ঞা বলবৎ…

আরও পড়ুন

৭টি মুসলিম-প্রধান দেশের নাগরিকের আমেরিকা প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা ট্রাম্পের

ওয়াশিংটন: কলমের কয়েকটা খোঁচায় প্রায় সাড়ে ১৩ কোটি মানুষের আমেরিকা যাওয়া আটকে দিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আপাতত ৯০ দিনের জন্য। ৭টি মুসলিম প্রধান দেশের নাগরিকদের জন্য জারি হল এই নিষেধাজ্ঞা। দেশগুলি হল ইরাক, ইরান, সুদান, লিবিয়া, সোমালিয়া, ইয়েমেন ও সিরিয়া। ভবিষ্যতে আরও দেশের নাম তালিকায় যুক্ত হতে পারে বলে জানিয়েছেন হোয়াইট হাউজের এক আধিকারিক। ট্রাম্পের শুক্রবারের এই নির্দেশ, ভবিষ্যতে আরও বড়ো নিষেধাজ্ঞার পথে যাওয়ার প্রথম পদক্ষেপ বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। এই সিদ্ধান্তের কারণ হিসেবে হোয়াইট হাউজের তরফে বলা হয়েছে, “আমেরিকাকে নিরাপদ রাখাই এই সিদ্ধান্তের লক্ষ্য” এবং তাঁরা “কোনো ঝুঁকি নিতে চাইছেন না”। এদিন উদ্বাস্তুদের আমেরিকায় ঢোকার ক্ষেত্রেও চার…

আরও পড়ুন

কারলভ হত্যার তদন্তে রাশিয়ার গোয়েন্দাবাহিনী তুরস্কে

আঙ্কারা : রাষ্ট্রদূত আন্দ্রেই কারলভের হত্যার এক দিন পর রাশিয়ার গোয়েন্দাবাহিনী তুরস্কে পৌঁছোল। এই হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করবেন তাঁরা। তুরস্ক সরকার এই ঘটনায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ধর্মগুরু ফতেউল্লাহ গুলেনকে অভিযুক্ত করছে। সোমবার একটি চিত্র প্রদর্শনীতে বক্তব্য পেশ করার সময় মেভলুত মার্ট আলতিনতাস নামে তুরস্কের এক ২২ বছরের পুলিশকর্মী আন্দ্রেই কারলভকে পেছন থেকে গুলি করে হত্যা করে। সেই সময় সে কর্তব্যরত ছিল না। ঘটনায় স্তব্ধ হয়ে যায় মস্কো ও আঙ্কারা। এই ঘটনায় আটক করা হয়েছে ছয় জনকে। এঁদের মধ্যে রয়েছেন আলতিনতাসের বাবা, মা, কাকা এবং বোন।   যদিও হত্যাকাণ্ডের পর সিরিয়ার পরিস্থিতি নিয়ে রাশিয়া, তুরস্ক ও ইরানের বিদেশমন্ত্রকের বৈঠকের কোনো পরিবর্তন করা…

আরও পড়ুন

বন্দুকধারী কুর্দি যুবতীকে খুন করলে ১০ লক্ষ ডলার, ঘোষণা আইসিসের

লন্ডন: জোয়ানা পালানিকে মনে আছে? নামে হয়তো তিনি তত পরিচিত নন, যতটা পরিচিত তিনি ছবিতে। বছর দুয়েক আগে আইসিস জঙ্গিদের বিরুদ্ধে কুর্দি বাহিনীর লড়াইয়ে বেশ কয়েকবার ফুটে উঠেছে বছর তেইশের এই কুর্দি যুবতীর ছবি। হাতে বন্দুক, পরনে যুদ্ধের পোশাক। সেই জোয়ানাকে খুন করার জন্য ১০ লক্ষ ডলারের পুরষ্কার ঘোষণা করল আইসিস জঙ্গিগোষ্ঠী। ইরাকি সংবাদসংস্থা জানিয়েছে, একটি বিবৃতির মাধ্যমে জোয়ানার বিরুদ্ধে এই পুরষ্কারের কথা ঘোষণা করেছে আইসিস। যদিও নিজের দেশ ডেনমার্কেই কারাবাসের খাঁড়া ঝুলছে জোয়ানার ওপর। গত বছর জুনে তাঁর বিরুদ্ধে বিদেশ ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করে ডেনমার্ক। কিন্তু তিনি সেই নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘন করে মধ্যপ্রাচ্যে পাড়ি দেন। সেপ্টেম্বরে ডেনমার্কে ফিরে আসার পর…

আরও পড়ুন

চলচ্চিত্র উৎসবের শেষ দিন: ইরানি নব তরঙ্গ ও মিনিমালিস্টিক অ্যাপ্রোচ

মৌসুমী বিলকিস সেভেন্টি সিক্স মিনিটস অ্যান্ড ফিফটিন সেকেন্ডস উইথ আব্বাস কিয়ারোস্তামি তথ্যচিত্রটি সদ্য প্রয়াত ইরানি পরিচালকের কাজের, প্যাশনের বিশেষ কিছু মুহূর্ত ধরেছে খুবই অন্তর্গত ভঙ্গিতে। তথাকথিত তথ্যচিত্রের মতো করে নয়, এক শিল্পীর দৃষ্টিতে আর এক শিল্পীকে দেখা। হ্যাঁ, তথ্যচিত্রটির পরিচালক সইফল্লাহ্‌ সামাদিয়ান নিজেও ফটোগ্রাফার, সিনেমাটোগ্রাফার, পরিচালক এবং আর্ট ডিরেক্টর। তিনি কিয়ারোস্তামির সঙ্গেও যেমন কাজ করেছেন তেমনি মার্টিন করসেসের সঙ্গেও। তাই তাঁর কাজের যে আর্টিস্টিক অ্যাপ্রোচ যার স্বাক্ষর তাঁর স্টিল ফোটোগ্রাফির ফ্রেমময় ছড়িয়ে আছে তা এই ফিল্মটিরও অবয়ব জুড়ে বর্তমান। প্রথমেই দেখি বরফে ঢাকা প্রকৃতির মধ্যে আব্বাস কিয়ারোস্তামি দুটো স্টিল ক্যামেরা নিয়ে একের পর এক ছবি তুলে চলেছেন। কখনো বরফ গায়ে…

আরও পড়ুন

জলে, স্থলে কার্যকর আত্মঘাতী ড্রোন তৈরি করল ইরান

আত্মঘাতী ড্রোন নিয়ে এল ইরান। বুধবার ইরানের রেভলিউশনরি গার্ডের এক উচ্চপদস্থ কর্মচারী  জানান, এই ড্রোনটি জলে ও স্থলে সমানভাবে কার্যকরী। নজরদারির পাশাপাশি শত্রুকে লক্ষ করে আঘাত করতেও সক্ষম এটি। সূত্রের খবর, এই ড্রোন প্রাথমিক ভাবে নৌবাহিনীর নজরদারির জন্য কাজ করবে। এর নকশা সৈন্যবাহিনীর ক্ষেপণাস্ত্র বহন করার উপযোগী না হলেও এটি ভারী বিস্ফোরক বহনে সক্ষম। এটি আত্মঘাতী বিস্ফোরণ ঘটিয়ে শত্রুকে ধ্বংস করার ক্ষমতা রাখে। এটি খুব দ্রুতগতিতে সমুদ্রপৃষ্ঠের ওপর দিয়ে উড়তে পারে। জলের মাত্র ২ফুট ওপর দিয়ে প্রতি ঘণ্টায় ২৫০ কিলোমিটার (১৬০মাইল) গতিতেও যেমন এটি উড়তে সক্ষম। অন্যদিকে ৯০০মিটার বা তিন হাজার ফুট ওপর দিয়ে ওড়ারও ক্ষমতা রয়েছে এই ড্রোনটির।

আরও পড়ুন

ক্রেডিট কার্ড চালু হল ইরানে

আর্থিক নিষেধাজ্ঞায় জর্জরিত অর্থনীতিকে চাঙ্গা করার উদ্দেশ্যে ক্রেডিট কার্ড চালু করার সিদ্ধান্ত নিল ইরানের ব্যাঙ্কগুলি। দোকান এবং অনলাইনে জিনিসপত্র কেনার ক্ষেত্রে এই ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করা যাবে। ইরানের সেন্ট্রাল ব্যাঙ্ক ক্রেডিট সীমা এবং ফি-শতাংশ ধার্য করেছে, কিন্তু ক্রেডিট কার্ড পাওয়ার ব্যাপারে কোনও ব্যক্তির যোগ্যতা নির্ধারণ করবে সংশ্লিষ্ট ব্যাঙ্ক। ৩ হাজার ডলার, ১০ হাজার ডলার আর ১৫ হাজার ডলারের সীমা পর্যন্ত ক্রেডিট কার্ডগুলি দেওয়া হবে।  ক্রেডিট কার্ডের পদ্ধতির সাথে মানিয়ে নিতে ব্যাঙ্কগুলির যে এখনও সময় লাগবে, সে ব্যাপারে সতর্ক করেছেন সেন্ট্রাল ব্যাঙ্কের অধিকর্তা ভালিওল্লাহ সেফ। এর আগে অবধি ইরানে ডেবিট কার্ড ও প্রিপেড কার্ডের ব্যবস্থা ছিল।  

আরও পড়ুন

সহজ কথা সহজ গানে ‘কালো মাছের গল্প’

সৈকত ভকত পূর্বাঞ্চল সংস্কৃতি কেন্দ্রের উদ্যোগে সল্টলেকের ভারতীয়ম কমপ্লেক্সে যে বৃহৎ নাট্যমেলা হয়ে গেল সম্প্রতি, সেখানে প্রদর্শিত হল পূর্ব কলকাতা বিদূষক নাট্যমণ্ডলীর প্রযোজনা ‘কালো মাছের গল্প’। ক্যাস্পিয়ান সাগরের তীরে উত্তর ইরানের আজারবাইজান প্রদেশে গল্পটি লিখেছিলেন সামাদ বেহরাঙ্গি। সেই ছয়ের দশকে। ইরানে তখন পহ্‌লবি রাজবংশের স্বৈরতন্ত্র। লোকগল্পের আঙ্গিকে লেখা শিশুপাঠ্য সেই গল্প নিষিদ্ধ হয়। রূপকের আড়ালে বামপন্থী রাজনৈতিক মতাদর্শ প্রচারের অভিযোগে। মাত্র আঠাশ বছর বয়সে ইরানের আরস নদীতে ডুবে লেখকের অকালমৃত্যুটিও বিতর্কিত। মৃত্যু, না হত্যা; তৎকালীন রাষ্ট্রের হাত ছিল কি না, সে সব প্রশ্ন অতীত। শুধু রয়ে গিয়েছে সেই ছোট্ট কালো মাছ বা ‘দ্য লিট্‌ল ব্ল্যাক ফিশ’। তৃতীয় দুনিয়ার আধুনিক সাহিত্যের…

আরও পড়ুন

ক্যান্সারে আক্রান্ত আব্বাস কিয়ারোস্তামি

খবর অনলাইন: ইরানি চলচ্চিত্রের অঘোষিত ‘ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর’ আব্বাস কিয়ারোস্তামি ক্যান্সারে আক্রান্ত। সে দেশের একটি সংবাদমাধ্যম এ খবর দিয়ে জানিয়েছে,  ৭৫ বছর বয়সি এই চলচ্চিত্র পরিচালকের শরীরে অস্ত্রোপচার হয়েছে। ইরানের একটি হাসপাতালে তাঁর চিকিৎসা চলছে। তবে, তাঁর পরিবারের পক্ষ থেকে এ নিয়ে কোনও মন্তব্য করা হয়নি। ১৯৭০ সাল থেকে ধারাবাহিক ভাবে নিয়মিত স্বল্পদৈর্ঘ্য, পূর্ণদৈর্ঘ্য ছবি বানিয়ে আসছেন কিয়ারোস্তামি। তাঁর উল্লেখযোগ্য ছবিগুলির মধ্যে রয়েছে, ‘টেস্ট অফ চেরি’ ও ‘উইন্ড উইল ক্যারি আস’-এর মতো ছবি। ষাটের দশকের শেষের দিকে ইরানি চলচ্চিত্রের নবতরঙ্গ আন্দোলনের অন্যতম পথিকৃৎ তিনি। নানা প্রতিকূলতার বিরুদ্ধে লড়াই করে লাগাতার তিনি ছবি বানিয়ে গেছেন, এ বার তাঁর লড়াই ক্যান্সারের বিরুদ্ধে।

আরও পড়ুন