khabor online most powerful bengali news

৫১ বছরের ইতিহাসে প্রথম মহিলা ফিল্ড অফিসার পেল বিএসএফ

তেকানপুর( মধ্যপ্রদেশ): সীমান্ত রক্ষা বাহিনীর ৫১ বছরের ইতিহাসে এই প্রথম কোনো মহিলা ফিল্ড অফিসার হলেন। বিকানিরের তনুশ্রী পারিক। ২৫ বছরের তনুশ্রীই প্রথম মহিলা, যিনি বিএসএফ-এর অফিসার স্তরে যোগ দিলেন। ২০১৪ সালের ইউপিএসসি-র সর্ব ভারতীয় পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছিলেন তনুশ্রী।  শনিবার ৬৭ জন ট্রেনি অফিসারের পাসিং আউট প্যারেডের নেতৃত্ব দেন তনুশ্রী পারিক। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং তাঁর কাঁধে  র‍্যাঙ্ক স্টার লাগিয়ে দেন। ২০১৩ সাল থেকে মহিলা অফিসারদের বাহিনীতে যুক্ত করার প্রক্রিয়া শুরু করেছে সীমান্ত রক্ষা বাহিনী। পঞ্জাবের ভারত-পাকিস্তান বর্ডারে নিযুক্ত হচ্ছেন তনুশ্রী। 

আরও পড়ুন

বাবা রামদেবের পতঞ্জলি সামগ্রী ব্যবহার করবে বিএসএফ

নয়াদিল্লি: শারীরিক ভাবে সক্ষম থাকতে গত বছরই বাবা রামদেবের যোগব্যায়াম কেন্দ্র থেকে প্রশিক্ষণ নিয়েছিলেন সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) জওয়ানরা। এ বার তাঁরা ‘পতঞ্জলি’র সামগ্রী ব্যবহার করা শুরু করবেন। দেশ জুড়ে বিএসএফ-এর যে সব ক্যাম্পাস আছে সেখানে ‘পতঞ্জলি এফএমসিজি’ ব্র্যান্ডের সামগ্রী বিক্রি করার জন্য ডজন খানেক স্টোর খোলা হবে। এমনই একটি স্টোর খোলা হল রাজধানী দিল্লির বিএসএফ ক্যাম্পে। বিএসএফ-এর ডিরেক্টর জেনারেল কে কে শর্মার স্ত্রী রেণু শর্মা ওই স্টোরের উদ্বোধন করেন। দ্য বিএসএফ ওয়াইভস ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন (বিডব্লিউডব্লিউএ) হরিদ্বারের পতঞ্জলি আয়ুর্বেদ লিমিটেডের সঙ্গে একটি মৌ স্বাক্ষর করেছে। বিএসএফ-এর তরফে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ক্যাম্পের স্টোরগুলি থেকে বাহিনীর জওয়ানরা এবং তাঁদের পরিবারবর্গ পতঞ্জলির সামগ্রী…

আরও পড়ুন

তেজবাহাদুর সত্য উদঘাটন করেছে, দাবি পরিবারের

নয়াদিল্লি: তেজবাহাদুর বিএসএফের শীর্ষ নেতৃত্বে দুর্নীতির সত্য উদঘাটন করেছে। তাঁকে শাস্তি না দিয়ে সরকারের উচিত নিরপেক্ষভাবে তদন্ত করা। বুধবার এমনই দাবি করল জওয়ান তেজবাহাদুর যাদবের পরিবার। তেজবাহাদুর মানসিক রোগী, বিএসএফের এই দাবিকে নস্যাৎ করে তাঁর স্ত্রী শর্মিলা বলেছেন, “আমার স্বামী যেটা বলেছেন সেটা একদম সঠিক এবং জওয়ানদের ভালোর জন্যই বলেছেন। খাবারের দাবি করা কি ভুল? ও সত্যিটা প্রকাশ করেছে কিন্তু শীর্ষ কর্তারা বলছে ও মানসিক রোগী। মানসিক রোগী হলে এ রকম সংবেদনশীল জায়গায় ওঁকে বদলি করা হল কেন?” বাবার সমর্থনে তেজবাহাদুরের ছেলে রোহিত বলেন, “বাবার সঙ্গে কোনো যোগাযোগ করতে পারিনি। বুঝতে পারছি না বাবা কী রকম পরিস্থিতিতে রয়েছে। বাবা তো…

আরও পড়ুন