khabor online most powerful bengali news

ট্রেনে সামনে বসা সাদা যাত্রী গাল পাড়ে, হাড় কেঁপে ওঠে বই-কি !

নিশান চট্টোপাধ্যায় নিউ ইয়র্কে যখন প্রথম আসি সালটা তখন ২০১০। ডেনমার্কের গভীর একাকিত্ব ছেড়ে এ শহর নিতান্ত মন্দ ছিল না। বিমানবন্দরের সহাস্য শিখ ট্যাক্সিওলা বাড়ি পৌঁছে দিয়ে দাড়ির ফাঁকে হেসে বললেন, “ওয়েলকাম টু নিউ ইয়র্ক”। এ জিনিস ইউরোপে দুর্লভ। জীবনে এতদিন এক শহরে থাকার অভিজ্ঞতাও আমার এই প্রথম। আতঙ্কে ছিলাম, হাজারটা দ্বিধা দ্বন্দ্ব ছিল, মনে হত প্রতি মুহূর্তে ‘এ আমার নয়, এ বড়ো অচেনা, এ বড়ো পর’। বাড়িওলা রাশিয়ান, তার বৌ থাই, আমি ভারতীয়। ডেনমার্কের অভিজ্ঞতা আমাকে বলেছিল, সব চেয়ে বেশি সমস্যা হবে রান্নার গন্ধ নিয়ে, কিন্তু এখানেও চমক। আমার খাবারের গন্ধে তাদের অসুবিধা তো হতই না, প্রকারান্তরে আমার একা…

আরও পড়ুন

সিয়েরা লিয়নের সরকারি ভাষা বাংলা: কী ভাবে ?

কলকাতা: বাৎসরিক ভাষা দিবস উদ্‌যাপনের স্মৃতি এখনও ফিকে হয়নি। বাংলা ভাষা নিয়ে আরও কিছু কথা আলোচনা করলে দোষের কিছু নয়।  নিজের ভাষার স্বীকৃতির জন্য চার যুবক প্রাণ দিয়েছিলেন ১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি। প্রতিপক্ষ ছিল তৎকালীন পাকিস্তান সরকার। পরবর্তী কালে সেই ভাষার জন্য লড়েই আলাদা রাষ্ট্র অর্জন করেন সেই ভূখণ্ডের মানুষ। পূর্ব পাকিস্তান হল বাংলাদেশ। সেটা ১৯৭১ সাল। তার ২৮ বছর পরে ২১ ফেব্রুয়ারি দিনটিকে স্মরণে রেখে সেটিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের স্বীকৃতি দেয় রাষ্ট্রপুঞ্জ।  কিন্তু বাংলা ভাষার স্বীকৃতির সেখানেই শেষ নয়। পশ্চিম আফ্রিকার একটি ছোট্টো দেশ সিয়েরা লিয়নেরও অন্যতম সরকারি ভাষা বাংলা। কী ভাবে সম্ভব হল এমন আশ্চর্য ঘটনা? তার জন্য পিছিয়ে যেতে…

আরও পড়ুন

বাঙালির হয় ফেলু নয় Q, ওম পুরীরা হরিয়ানায় জন্মায়…

দেবারতি গুপ্ত এ এক অদ্ভুত সমাপতন। ঘুম থেকে উঠে টুইটারের দৌলতেই প্রথম খবরটা পেলাম গত ৬ জানুয়ারি। ওম পুরী সেদিন সকালেই মারা গেছেন। ডিজিটাল মিডিয়া হাতড়ে ওমের মৃত্যু সম্মন্ধে আরো কিছু খবর বের করার চেষ্টা করতে গিয়ে হোঁচট খেলাম আরেকটা খবরে। পরিচালক Q-র  ডবল ফেলুদা সিনেমা প্রসঙ্গে ‘F**k Manik’  মন্তব্য এবং তাতে প্রতিক্রিয়ার ঝড়। আমি ওম পুরী ভক্ত হিসেবে খবরটিতে পাত্তা না দিয়ে সেই দিনটা ওম সম্মন্ধীয় যাবতীয় খবরে নিজেকে নিয়োগ করলাম। ইউ টিউব হাতড়ে ওমের বিভিন্ন ছবির অংশ দেখে, সাম্প্রতিক কালে ওনার করা কিছু বিতর্ক সৃষ্টিকারী রাজনৈতিক মন্তব্য পড়ে এবং ফোন করে বন্ধু বান্ধবের কাছে ওম চর্চা শুরু করে…

আরও পড়ুন

প্রাথমিক শিক্ষায় বেহাল রাজ্য, সর্বশিক্ষা মিশনের সমীক্ষায় প্রকাশ

২০১৫ সালের নভেম্বর ও ডিসেম্বরে এই সমীক্ষা চালানো হয়েছিল রাজ্যের সমস্ত সরকারি ও সরকার অনুমোদিত স্কুলের তৃতীয় শ্রেণির কিছু বাছাই করা পড়ুয়াদের নিয়ে। উৎকর্ষ অভিযান ২০১৫। দেখা হয়েছিল অঙ্ক ও বাংলায় তাদের দক্ষতা। তাতেই উঠে এসেছে বহু চাঞ্চল্যকর তথ্য।   বাংলার ক্ষেত্রে সমীক্ষায় উঠে এসেছে,   ৫৫% পড়ুয়া তৃতীয় শ্রেণির উপযোগী অনুচ্ছেদ ঠিক ভাবে পাঠ করতে পারে না।  ৫০% ছাত্র ছাত্রী বাক্য গঠন করতে পারে না। ৭৫% পড়ুয়া মৌলিক রচনা ঠিক মতন লিখতে পারে না।   অঙ্কের ক্ষেত্রে দেখা যাচ্ছে, ২৭% ছাত্র-ছাত্রী যোগ করতে পারে না।  বিয়োগ করতে পারে না ৪১%, ৫২% পড়ুয়া গুন করতে পারে না।  ৪২% ছাত্র-ছাত্রী সংখ্যায় মান…

আরও পড়ুন