khabor online most powerful bengali news

সপ্তাহান্তে চলুন জয়রামবাটি-কামারপুকুর

স্মিতা দাস বিছানায় শুয়ে ঘুম চোখ খুলে চিন্তা আর চাক্ষুষে কোনো মিল পেলাম না। চিন্তায় ভেসে বেড়াচ্ছে শীতের ভোর সাড়ে চারটে, মঙ্গল আরতির সেই তিরতির করে জ্বলা আগুন শিখা। তখন ঘড়িতে ভোর চারটে পনেরো। সবাই মিলে হুড়োহুড়ি করে কোনো রকমে গরম জামা গায়ে চাপিয়ে মায়ের ঘরে যাওয়ার ধুম পড়ে গেল। পুকুরপাড় আর বাগানের মাঝের রাস্তাটা দিয়ে যে যার মতো ছুটছি। ‘মায়ের ঘরের দরজা বোধহয় এখনও খোলেনি’। না, ভাবনাটা ভুল। দরজা একটু আগেই খুলে গেছে। ভেতরে অনেকে বসেও পড়েছেন। ঘরের বাইরে জুতো খুলে সিঁড়ি দিয়ে উঠে ভেতরে ঢুকে নিঃশব্দে বসে পড়লাম সবার শেষে প্রায় দরজার মুখে। আস্তে আস্তে শুরু হল মায়ের…

আরও পড়ুন

জয়পুরের জঙ্গলে

শম্ভু সেন শেষ পর্যন্ত পরিত্রাতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হলেন নকুল লোহার। মহিষগোট ছাড়িয়ে আন্দাজেই ঢুকে গেছিলাম জঙ্গলের আরও গভীরে। এখানেই কোথায় সেই পরিত্যক্ত এয়ারস্ট্রিপটা আছে না ! কিন্তু পথের থই পেলাম না। জঙ্গল বেশ ঘন। এ দিকে বিকেলও পড়ে এল বলে। শুনেছি, এখানকার এয়ারস্ট্রিপে একটা নজরমিনার আছে। ইচ্ছে ছিল সেই নজরমিনার থেকে সূর্যাস্ত দেখব। কিন্তু গোল বাধল পথ নিয়ে। লালমাটির রাস্তাটা ক্রমশই ভিতরে ঢুকে গেছে। আর জঙ্গলও আরও গভীর হচ্ছে। এখানে আবার মাঝেমাঝেই হাতির হামলা হয়। দলমার দামালরা প্রায়ই হানা দেয় খাবারের সন্ধানে। কিছুটা আতঙ্ক, কিছুটা হতাশা। শেষ পর্যন্ত ফিরে যাওয়াই সাব্যস্ত হল। স্বভাবতই অভিযানের ব্যর্থতায় মন খুব খারাপ। এখনও তো…

আরও পড়ুন