পুজোর আগেই ডিএ-র সম্ভাবনা, প্রাথমিক তৎপরতা প্রশাসনে, চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন মুখ্যমন্ত্রী

0
69447

বিশেষ প্রতিনিধি:  চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে ১০ শতাংশ মহার্ঘ ভাতা পেয়েছেন রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা। তাও সামগ্রিক ভাবে এখনও ৫৪% মহার্ঘ ভাতা বাকি। তবে প্রশাসনের অন্দরে যা গুঞ্জন, তাতে কর্মচারীরা অনেকেই আশায় বুক বাঁধছেন। আশা, পুজোর আগেই এক কিস্তি ডিএ ঘোষণা করতে পারে রাজ্য সরকার।

আরও পড়ুন: এখনই নয়, ষষ্ঠ রাজ্য বেতন কমিশনের সুপারিশ হতে পারে লোকসভা ভোটের আগে: বিশেষ রিপোর্ট

পাশাপাশি রাজ্য সরকারি কর্মচারী সংগঠন কনফেডারেশন অফ স্টেট গভর্নমেন্ট এমপ্লয়িজ মহার্ঘ ভাতা নিয়ে হাইকোর্টে যে মামলা করেছে, তার গত শুনানিতে আদালত খানিকটা কর্মচারীদের পক্ষেই কথা বলেছে। হাইকোর্ট রাজ্য সরকারের কাছে জানতে চেয়েছে কর্মচারীদের কত শতাংশ ডিএ বাকি। আগামী ১০ আগস্ট মামলার ফের শুনানি। সরকারি কর্মচারীদের একটা বড়ো অংশ আশা করছেন বা মনে করছেন, ওই দিন বকেয়া মহার্ঘ ভাতা দেওয়া নিয়ে রাজ্য সরকারকে কোনো নির্দেশ দিতে পারে আদালত।

দেখে নিন তৃণমূল কংগ্রেস জমানায় কোন বছর কত শতাংশ মহার্ঘ ভাতা পেয়েছেন রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা

বিজ্ঞাপণ

অন্য দিকে রাজ্য সরকারের অর্থ দফতরের একটি সূত্র মারফত জানা যাচ্ছে, পুজোর আগে কিছু মহার্ঘ ভাতা দেওয়া যায় কি না, তা নিয়ে অর্থ দফতরের কাছে খোঁজ নিয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর দফতর।

রাজ্য সরকার যদি পুজোর আগে ডিএ দেয়, তবে তা কোনো ভাবেই ১২ শতাংশর বেশি হবে না, এমনই খবর অর্থ দফতর সূত্রে।

আদালতের পদক্ষেপ ও প্রশাসনের অন্দরের এই গুঞ্জন আশা জাগাচ্ছে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের মনে। চলতি মাসেই তৃণমূল কংগ্রেস সমর্থিত সরকারি কর্মচারী সংগঠন বকেয়া ডিএ-র দাবি নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে। পুজোর আগে আগস্ট মাসে বকেয়া ডিএ-র ১০ থেকে ১৫% কর্মচারীদের দেওয়ার জন্য ওই সংগঠন মুখ্যমন্ত্রীর কাছে দরবার করেছে। তৃণমূলের সংগঠনের ওই আর্জিও অনেকটা ইঙ্গিতপূর্ণ বলে মনে করছেন সরকারি কর্মচারীরা।

আরও পড়ুন: সার্ভিস বুকের দিন শেষ, কর্মসংস্কৃতি ফেরাতে সরকারি কর্মচারীদের জন্য কর্পোরেট পরিচালন ব্যবস্থা আনছে রাজ্য

সব মিলিয়ে, কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের সঙ্গে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের মহার্ঘ ভাতার সমতা আনতে চাইলে এখনই ৪০% ডিএ দিতে হবে রাজ্য সরকারকে। হাইকোর্ট কী নির্দেশ দেয়, তার ওপর অনেকটাই নির্ভর করবে, তবে রাজ্য সরকার যদি পুজোর আগে ডিএ দেয়, তবে তা কোনো ভাবেই ১২ শতাংশর বেশি হবে না, এমনই খবর অর্থ দফতর সূত্রে। রাজ্য সরকারের বর্তমান আর্থিক অবস্থায় সরকারি কর্মচারীদের পুজোর আগে ডিএ দেওয়াও যথেষ্ট চাপের ব্যাপার, তবে কর্মচারীদের কথা ভেবেই এই বিষয়ে প্রাথমিক আলোচনা শুরু করেছে রাজ্য।

বিজ্ঞাপন

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here