এসবিএসটিসি-র চালকদের জন্য যোগ ও মেডিটেশন ক্লাসের ব্যবস্থা

0
11

কলকাতা : দূরপাল্লার চালকদের জন্য যোগ ও মেডিটেশন ক্লাসের ব্যবস্থা করছে দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন নিগম। চালকদের মানসিক ক্লান্তি দূর করতে এবং তাঁদের চাঙ্গা রাখতেই এই উদ্যোগ বলে জানিয়েছেন সংস্থার চেয়ারম্যান তমোনাশ ঘোষ। সোমবার ধর্মতলায় ৪টি রুটে ৫টি বাতানুকুল ও বায়োটয়েলেট-যুক্ত অত্যাধুনিক এসি বাসের যাত্রার সূচনা করলেন তমোনাশবাবু।  

বাসযাত্রার উদবোধন করে বিধায়ক তমোনাশবাবু বলেন, বর্তমানে যে বাসগুলি চালু করা হচ্ছে সেগুলি প্রত্যকটাই আধুনিক প্রযুক্তিতে তৈরি। তাই বাসচালকদের নতুন ভাবে প্রশিক্ষণ নিতে হচ্ছে। এ ব্যাপারে ইন্ডিয়ান ওয়েলের সঙ্গে চুক্তি হয়েছে।  ইন্ডিয়াল অয়েল এই সমস্ত ড্রাইভার ও কন্ডাকটরের প্রশিক্ষণ দিচ্ছে। কারণ এই বাস ঠিকমতো চালাতে না পারলে তেল নষ্ট হবে এবং ইন্ডিয়ান অয়েলের সুনাম ক্ষতিগ্রস্ত হবে। 

তমোনাশবাবু বলেন, বিভিন্ন সময়ে চালকদের উপরে, বিশেষ করে যাঁরা দূরপাল্লার বাস চালান তাঁদের উপরে মানসিক চাপ পড়ে। এই চাপ কমাতে এবং একাগ্রতা বজায় রাখতে তাঁদের নিয়ে যোগব্যায়াম ও মেডিটেশনের ক্লাস করানোর চিন্তাভাবনা করা হয়েছে। এ ব্যাপারে বিখ্যাত যোগ বিশেষজ্ঞ তুষার শীলের সঙ্গে কথা হয়েছে। তাঁর প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে ওই ক্লাস করানোর উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। এটা করতে পারলে অবাঞ্ছিত দুর্ঘটনা অনেক কমতে পারে।

এ দিকে গরম বাড়লেই আসানসোল, দিঘা, হলদিয়া ও কলকাতার মধ্যে এসি বাসের চাহিদা বেড়ে যায়। সে কথা মাথায় রেখে ওই রুটগুলিতে আরও ৫টি বাস যোগ করা হল। ফলে এখন মোট ৯টি বাস চলাচল করবে। যে বাসগুলি চালু হল সেগুলি হল আসানসোল থেকে শিলিগুড়ি (২), হলদিয়া থেকে কলকাতা (১), দিঘা থেকে গড়িয়া (১) দিঘা থেকে ব্যারাকপুর (১)।

তমোনাশবাবু জানান, ১৯৬৭ সালে ৬২টি বাস নিয়ে যাত্রা শুরু হয়েছিল এসবিএসটিসি-র। ২০১৬ -১৭ সালে বাসের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬৭৯, তার মধ্যে চালু আছে ৫৬৪টি। গড়ে রাস্তায় চলে ৪৭০টি। মাসিক আয় বেড়ে হয়েছে ১০ কোটি ৫০ লক্ষ টাকা। ডিসেম্বর মাসে রেকর্ড আয় হয়েছে, প্রায় ১০ কোটি ৮৬ লক্ষ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here