Search

অন্দর সজ্জা: ‘ওয়ার্ক হার্ড – পার্টি হার্ডার’

অন্দর সজ্জা: ‘ওয়ার্ক হার্ড – পার্টি হার্ডার’

moitryমৈত্রী মজুমদার

দেখতে দেখতে বছর শেষ, আসছে আর একটা নতুন বছর। আর এটাই তো সময় জমিয়ে আনন্দ করার। কেউ যাবেন দূরে বেড়াতে, কেউ কেউ কাছাকাছি পিকনিক সেরে নেবেন আবার কেউ কেউ এই সুযোগে নিজের আত্মীয়-বন্ধু নিয়ে জমিয়ে আড্ডা আর খাওয়াদাওয়া করে শামিল হবেন উৎসবের আনন্দে। আসা-যাওয়া চলতে থাকুক নিজের তালে, আপনি এই ফাঁকে নিজের বাড়িটিকে সাজিয়ে তুলুন পার্টি মুডে।

আমাকে অনেক পার্টিতে যেতে হবে। তাই চলুন তাড়াতাড়ি দেখে নিই কী ভাবে এই মরশুমে নিজের ঘরটি সাজিয়ে নেওয়া যায়।

উৎসব মানেই রঙ, উৎসব মানেই আলো …

যে কোনো জায়গাকে কম খরচে রঙিন করে তোলার সব চেয়ে সহজ উপায় হল রঙিন কাগজ।

বিভিন্ন রঙের কাগজ নানা জ্যামিতিক আকারে কেটে সুতোয় গেঁথে মালার মতো বানিয়ে নিন আর আলাদা আলাদা জায়গার দেওয়ালে আলাদা আলদা ভাবে ঝুলিয়ে দিন। যেমন ধরুন খাটের হেড-বোর্ডের পিছনে।

1

বা সোফার ওপরে বা দরজার পাশে।

2

বড়ো বড়ো আকারে পশু বা পাখির আকারে কাটা রঙিন কাগজের চাঁদমালা বানিয়েও ঝোলাতে পারেন দেওয়ালে।

3

অথবা বানিয়ে নিন কাগজের শিকল আর রঙ মিলিয়ে ঝুলিয়ে দিন দেওয়ালে। এর সঙ্গে রং মিলিয়ে সাজিয়ে রাখুন ফোটোফ্রেম, ফুল আর বিভিন্ন শো-পিসগুলি।

4

নীচের ছবির মতো করে কাগজ কেটে বানিয়ে নিন বিভিন্ন রঙের প্রজাপতি আর লাগিয়ে দিন দেওয়ালে, দেখতে দেখতে আপনার সাধের বেডরুম পরিণত হবে রঙিন বাগানে।

5

আপনার পরিবারের ছোট্টো সদস্যদেরও এই কাজে সঙ্গে নিন, দেখবেন আপনার গোটা পরিবার কেমন আনন্দে মেতে উঠবে এই উৎসবের মরশুমে।

এ বার আসা যাক আলোর কথায়।

আজকাল বাজারে পাওয়া যায় বিভিন্ন ধরনের বা রঙের লেড লাইট, এগুলোকেও বিভিন্ন ভাবে ব্যবহার করা যেতে পারে।

6a

যেমন ধরুন, কাগজের কাপের মালা বানিয়ে তার মধ্যে লাগিয়ে নিন এই লাইট আর ঝুলিয়ে দিন দেওয়ালে বা দরজার ওপরে।

6

বাড়িতে থাকা বিভিন্ন আকারের খালি বোতল বা বয়ামের মধ্যে ভরে দিন বিভিন্ন রঙের আলোর মালা, পাশাপাশি সাজিয়ে রেখে দেখুন কেমন লাগে আপনার বাড়ি।

7

খালি ওয়াইন বোতল বা ওয়াইন গ্লাসকে ব্যবহার করুন মোমবাতিদান হিসেবে আর দেখুন কী ভাবে রহস্যময় হয়ে ওঠে আপনার ঘরটি।

8

পার্টির মূল আকর্ষণ হল খাওয়াদাওয়া, তাই ডাইনিং রুমটিকে বিশেষ ভাবে সাজিয়ে নেওয়া দরকার।

খাওয়ার টেবিলের ওপরে সিলিং-এ আঠা দিয়ে লাগিয়ে নিন সার সার বেলুন আর তার দড়ির শেষ প্রান্তে ঝুলিয়ে দিন ছোটো ছোটো গিফট, চকলেট বা আপনার পছন্দের ছবি।

9

টেবিলের ওপর মোমবাতি, ফুলদানি, ঠান্ডা পানীয়ের বোতল, সাজিয়ে নিন নিজের মতো করে, আর মেতে উঠুন উৎসবের আনন্দে।

10

তা হলে আপনি সাজিয়ে নিন আপনার বাড়ি আর আমি চললাম পার্টি করতে। এই একটাই তো সময়।

দেখা হবে নতুন বছরে।

(ছবি ইন্টারনেটের মাধ্যমে সংগৃহীত)

শেয়ার করুন

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন