khabor online most powerful bengali news

অফ-সিজনে পর্যটক টানতে বিশেষ ছাড়ের ব্যবস্থা রাজ্য পর্যটন উন্নয়ন নিগমের

কলকাতা:  পর্যটকদের স্বার্থে গত কয়েক বছরে কয়েকটি উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ করেছে পশ্চিমবঙ্গের পর্যটন বিভাগ। তৈরি হয়েছে নতুন কিছু পর্যটক আবাস। অন্য দিকে নব রূপে সজ্জিত হচ্ছে কিছু পুরোনো পর্যটক আবাস। কিন্তু এত কিছু করার পরেও অফ-সিজনের পর্যটক-শূন্যতা পর্যটন উন্নয়ন নিগমের লাভের অঙ্ক অনেকটাই কমিয়ে দিচ্ছে। এই সব মাথায় রেখেই অফ-সিজনে পর্যটক আবাসগুলিতে বিশেষ ছাড়ের ব্যবস্থা করেছে পর্যটন উন্নয়ন নিগম। উত্তরবঙ্গে বর্ষাকালটা অফ-সিজন হিসেবে গণ্য হয়। এমনিতেই পশ্চিমবঙ্গের বাকি জেলাগুলির থেকে উত্তরবঙ্গের পাঁচ জেলায় বৃষ্টির পরিমাণ অনেকটাই বেশি। তাই খুব বেশি পর্যটক ও-দিকে পা মাড়ান না। এই বিষয়েই চিন্তিত শোনাচ্ছিল পর্যটন উন্নয়ন নিগমের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার অমিতাভ ঘোষকে। জলপাইগুড়ি জেলার লাটাগুড়ি, মালবাজার…

আরও পড়ুন

শান্তিনিকেতন থেকে শক্তি পীঠ, রাজ্য পর্যটনের ‘শক্তি ট্রেল’ প্যাকেজে

কলকাতা: দোলের সময় শান্তিনিকেতন যেতে চান অনেকেই, কিন্তু হোটেলে জায়গার অভাবে সেটা হয়ে ওঠে না। দুঃখ করবেন না, দোলের এক সপ্তাহ পরেই পশ্চিমবঙ্গ পর্যটন উন্নয়ন নিগমের প্যাকেজে ঘুরে আসুন শান্তিনিকেতন। শান্তিনিকেতনের পাশাপাশি বীরভূমের সতী পিঠ বা শক্তি পিঠ দেখানোর ব্যবস্থা থাকছে এই প্যাকেজে। দু’রাত তিন দিনের এই প্যাকেজ শুরু হবে ১৭ মার্চ। সকাল আটটায় বিবাদী বাগের ট্যুরিজম সেন্টার থেকে বাস ছাড়বে। বেলা বারোটা নাগাদ শান্তিনিকেতন টুরিস্ট লজে পৌঁছবে বাস। মধ্যাহ্নভোজনের পালা শেষ করে ওই দিন দুপুরে পর্যটকরা নিজেদের মতো করে শান্তিনিকেতন ঘুরে নিতে পারেন। ওই দিন সন্ধ্যায় টুরিস্ট লজে লোকগীতি গানের ব্যাবস্থাও রেখেছে পর্যটন দফতর। পরের দিন অর্থাৎ ১৮ তারিখ…

আরও পড়ুন

পশ্চিমবঙ্গ পর্যটন উন্নয়ন নিগমের পুরী প্যাকেজ

কলকাতা: এই প্রথম নিজস্ব প্যাকেজে পুরী নিয়ে যাচ্ছে পশ্চিমবঙ্গ পর্যটন উন্নয়ন নিগম। চার রাত্রি পাঁচ দিনের এই সফর হবে ভলভো বাসে। প্রথম দিন রাত সাড়ে আটটায় বিবাদী বাগের পর্যটন উন্নয়ন নিগমের অফিস থেকে বাস ছাড়বে। দ্বিতীয় দিন সকাল সাড়ে সাতটায় পুরী পৌছোনো। পর্যটকরা উঠবেন পুরীর পান্থনিবাসে। ওইদিন পর্যটকরা নিজেদের মতো করে পুরী ঘুরে নেবেন। তৃতীয় দিন লোকাল সাইটসিয়িং। কোনারক, উদয়গিরি, খণ্ডগিরি, ধবলগিরি, নন্দনকানন, লিঙ্গরাজ মন্দির এবং রাজারানি মন্দির ঘুরিয়ে বিকেলের মধ্যে পুরী ফেরা। চতুর্থ দিন সকালে রওনা সাতপাড়ার উদ্দেশে। থাকছে চিলকা হ্রদে ঘণ্টা দুয়েকের নৌকাবিহারের ব্যবস্থাও। ওইদিনই রাতের খাবার সেরে কলকাতার উদ্দেশে রওনা। পঞ্চম দিন সক্কালে কলকাতা পৌঁছে প্যাকেজ শেষ।…

আরও পড়ুন

নেওড়া ভ্যালিতে রয়্যাল বেঙ্গল! গোপন ক্যামেরায় ধরা পড়ল ছবি

নিজস্ব সংবাদদাতা: রয়্যাল বেঙ্গল রহস্য আর রহস্য রইল না। রহস্যের পর্দা ভেদ করে টাইগার  ধরা দিলেন ক্যামেরার চোখে। বাংলার ‘বাঘ’ প্রকাশ্যে আসতেই রাতারাতি শিরোনামে নেওড়াভ্যালি জাতীয় উদ্যান। ২৩ জানুয়ারি রাতে একটি পূর্ণবয়স্ক বাঘের ছবি ধরা পড়েছে বন দফতরের গোপন ক্যামেরায়। কালিম্পং মহকুমার নেওড়াভ্যালি জাতীয় উদ্যান। জলপাইগুড়ি বনবিভাগের আওতায় থাকা এই ‘ভার্জিন হিল ফরেস্ট’ সাধারণ মানুষের জন্য দুর্ভেদ্য। ১৯৯৮ সালের বাঘগণনায় বাঘের পায়ের ছাপ সহ বিভিন্ন চিহ্ন দেখে ১৮টি বাঘের অস্তিত্ব পেয়েছিল বন দফতর। যদিও সরাসরি বাঘ চাক্ষুষ হয়নি গণনাকারী দলের। সেটা ছিল নেওড়াভ্যালির প্রায় ১১ হাজার ফুট উচ্চতায়। যেমন বাঘ থাকার প্রত্যক্ষ প্রমাণ মেলেনি উত্তরবঙ্গের একমাত্র ব্যাঘ্র অভয়ারণ্য বক্সায়। স্বাভাবিক…

আরও পড়ুন

রাজ্যে সপ্তাহান্তিক ভ্রমণ নিয়ে বেঙ্গল চেম্বারের ওয়েবসাইট

কলকাতা : শুক্রবার বেঙ্গল চেম্বার অফ কমার্সে সপ্তাহান্তিক ভ্রমণ নিয়ে একটি ওয়েবসাইটের উদ্বোধন করেন পর্যটনমন্ত্রী। মন্ত্রী বলেন, এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে রাজ্যের বিভিন্ন জেলার ৪৪টা জায়গার যাবতীয় তথ্য একটি মাউসের ক্লিকের মাধ্যমে মানুষ খুঁজে পাবেন। সেখানে কী ভাবে যেতে হবে, থাকার ব্যবস্থা কী, মাথাপিছু খরচ কত হবে ইত্যাদি যাবতীয় তথ্য পাওয়া যাবে ওই ওয়েবসাইটে। ৮০০ থেকে ৪০০০০ হাজার টাকা খরচে কী থাকার ব্যবস্থা আছে তার যাবতীয় তথ্য মিলবে সেখানে। ওয়েবসাইটটা হল www.bengalweekend.com।   এ ছাড়াও  উত্তরবঙ্গ থেকে দক্ষিণবঙ্গ, সারা রাজ্য জুড়েই নানা পর্যটন প্রকল্প তৈরি হচ্ছে। দার্জিলিঙের টাইগার হিলে সূর্যোদয় দেখার জন্য পর্যটন আবাস তৈরি করা হচ্ছে। অযোধ্যা পাহাড়ে রোপওয়ে তৈরি হচ্ছে বলে…

আরও পড়ুন

শান্তিনিকেতনে নতুন পর্যটক আবাস খুলল পশ্চিমবঙ্গ পর্যটন

বোলপুর: পর্যটকদের স্বার্থে গত কয়েক বছরে কয়েকটি উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ করেছে পশ্চিমবঙ্গের পর্যটন বিভাগ। পর্যটকদের সুবিধার্থে এক দিকে যেমন অনলাইন বুকিং-এর ব্যবস্থা করেছে রাজ্য পর্যটন উন্নয়ন নিগম, অন্য দিকে বেশ কয়েকটি পর্যটক আবাসেরও সূচনা হয়েছে। এদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য মূর্তি, জয়ন্তী আর লাটাগুড়ি পর্যটক আবাস। সেই তালিকায় নবতম সংযোজন শান্তিনিকেতনের কাছে একটি পর্যটক আবাস। এমনিতে বোলপুরে শান্তিনিকেতন টুরিস্ট লজ তো রয়েছেই, কিন্তু নতুন এই আবাস, ‘রাঙাবিতান টুরিস্ট কমপ্লেক্স’টি তৈরি হয়েছে শান্তিনিকেতনের অদূরেই বল্লভপুরে। অবশ্য এটি তৈরি হয়েছিল গত বছর মার্চে। প্রায় দশ কোটি ব্যয়ে তৈরি এই রাঙাবিতানের দায়িত্বে ছিল বীরভূম জেলা পরিষদ। নতুন বছরের শুরুতেই বীরভূম জেলা পরিষদের হাত থেকে রাঙাবিতানের দায়িত্ব…

আরও পড়ুন

আরও তাড়াতাড়ি টিকিট বুক করতে আইআরসিটিসি-র নতুন অ্যাপ

নয়াদিল্লি: ইন্ডিয়ান রেলওয়েজ ক্যাটারিং অ্যান্ড টুরিজম কর্পোরেশন লিমিটেড আগামী সপ্তাহে নিয়ে আসতে চলেছে তাদের নতুন টিকিট বুকিং অ্যাপ। নতুন অ্যাপটির নাম ‘আইআরসিটিসি রেল কানেক্ট’। বর্তমান অ্যাপটি ‘আইআরসিটিসি কানেক্ট’। নতুন অ্যাপটি থেকে অনেক সহজে ও তাড়াতাড়ি অনলাইনে টিকিট কাটতে পারবেন যাত্রীরা, দাবি আধিকারিকদের। বিভিন্ন টিকিট বুকিং ওয়েবসাইটের সঙ্গে যুক্ত থাকবে অ্যাপটি। এই সুবিধা বর্তমান অ্যাপটিতে নেই। নতুন অ্যাপে ট্রেন খোঁজা, টিকিট কাটা, বাতিল করা, আসন সংরক্ষণ কী অবস্থায় আছে জানার সুযোগ তো থাকবেই। পাশাপাশি, সংশ্লিষ্ট যাত্রীর অদূর ভবিষ্যতের যাত্রা সংক্রান্ত অ্যালার্টের ব্যাবস্থাও থাকবে। আইআরসিটিসি রেল কানেক্ট অ্যাপ থেকে একবার টিকিট কাটলেই যাত্রীর যাবতীয় তথ্য সেখানে সংরক্ষিত থাকবে। পরবর্তীকালে টিকিট কাটলে সেই…

আরও পড়ুন

কলকাতা-পুরী বাস পরিষেবা চালু করল রাজ্য পরিবহণ দফতর

কলকাতা: জগন্নাথ দর্শন করতে যাবেন অথচ ট্রেনে রিজার্ভেশন পাছেন না? আর কোন চিন্তা নেই। এ বার বাসে চড়ে যেতে পারবেন জগন্নাথদর্শনে। কলকাতা থেকে পুরীর বাস পরিষেবা শুরু করল পশ্চিমবঙ্গ পরিবহণ দফতর। বৃহস্পতিবার করুণাময়ী বাসস্ট্যান্ডে এই পরিষেবার সূচনা করেন পরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। কলকাতা আর পুরীর মধ্যে আপাতত চারটি বাস চলাচল করবে। রাজ্য পরিবহণ দফতরের সহযোগিতায় আর শ্যামলী পরিবহণের পরিচালনায় দু’টি বাস প্রতি দিন রাত আটটায় কলকাতা থেকে রওনা হয়ে পুরী পৌঁছবে পরের দিন সকাল ছ’টায়। অন্য দিকে প্রতি দিন রাত আটটাতেই পুরী থেকে রওনা হয়ে পরের দিন সকাল ছ’টায় কলকাতা পৌঁছবে এই বাস। এসি বাসে আরাম করে ঘুমিয়ে সফর করতে পারবেন…

আরও পড়ুন

২৪ ডিসেম্বর মাদার হাউস থেকে ব্যান্ডেল চার্চ চলুন রাজ্য পর্যটনের প্যাকেজ ট্যুরে

কলকাতা : বড়োদিন উপলক্ষে এবার কলকাতা ও তার শহরতলিতে বাসে মাদার হাউস থেকে শুরু করে বিভিন্ন চার্চ ঘোরানোর বিশেষ ব্যবস্থা করেছে পশ্চিমবঙ্গ পর্যটন ও কলকাতা পুরসভা। দেশ ও বিদেশের ভ্রমণার্থীদের জন্য এইট্যুরের ব্যবস্থা করা হয়েছে। বুধবার পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব এ কথা জানিয়েছেন।   ২৪ তারিখ বিকাল ৫টায় বিবাদী বাগে পর্যটন অফিস থেকে দু’টি বাস ছাড়বে। একটি বাসে মাদার হাউস থেকে শুরু করে কলকাতার বিভিন্ন চার্চ ঘুরিয়ে আনা হবে। ভ্রমণ শেষ হবে রাত পৌনে ১টা নাগাদ। এই ভ্রমণের মাথাপিছু খরচ ধরা হয়েছে ১০৫০ টাকা। এতে রাতের খাওয়ার ব্যবস্থা থাকবে। দ্বিতীয় বাসটি  কলকাতার মাদার হাউস থেকে ব্যান্ডেল চার্চ, চন্দননগর প্রভৃতি জায়গা ঘুরিয়ে…

আরও পড়ুন

শীতের গন্তব্য/১ : খবর অনলাইনের বাছাই

ঝান্ডি ইকো হাট থেকে কাঞ্চনজঙ্ঘা মোদীজির ডিমানিটাইজেশনের ঠ্যালায় পকেটের নাভিশ্বাস ওঠার অবস্থা। এই সময় বেড়ানোর গপ্প। নিশ্চয়ই ভাবছেন তাই। তেমন শীত এখনও পড়েনি। আগাম হদিশ দিয়ে আমরা রাখলাম কিছু বেড়ানোর জায়গার। এমন কিছু জায়গা, যেখানে শীত যেতে যেতে মার্চ পেরিয়ে যাবে। সুতরাং এখনই কেন, আগাম পরিকল্পনা করুন, ডিসেম্বর থেকে মার্চের মধ্যে যখন খুশি বেরিয়ে পড়ুন। তত দিনে বাজার কিছুটা ধাতে আসবেই। আর যত কষ্টই হোক, মনটা তো সব সময় উড়ুউড়ু। পরিস্থিতি একটু বাগে এলেই মনে হবে কোথাও যাই। তারই সুলুকসন্ধান। আজ প্রথম কিস্তি।   ত্রিপুরা অবস্থানগত কারণে পর্যটন মানচিত্রে উত্তরপূর্বের এই রাজ্যটি কিছুটা উপেক্ষিতই। কিন্তু এতটুকু ছোটো রাজ্যে এত বেশি…

আরও পড়ুন