khabor online most powerful bengali news

ডাক্তারের চেম্বার থেকে: গ্লকোমা রোগ নয়, রোগের সমাহার

সিদ্ধার্থ নিয়োগী, চক্ষু বিশেষজ্ঞ চোখের সম্পর্কে নতুন করে কোনো সূচনার দরকার পড়ে না। তাই সরাসরি প্রসঙ্গে চলে আসাই যুক্তিযুক্ত। চোখের সমস্যা বিভিন্ন রকম হলেও গ্লকোমাকে বলা যেতেই পারে চোখের সাইলেন্ট কিলার। বর্তমানে বিশ্বে গ্লকোমা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৭ কোটি ছাড়িয়ে গেছে। প্রায় উপসর্গহীন এই রোগটি যথাসময়ে ধরা না পড়লে চোখের মৃত্যু অনিবার্য। চক্ষু বিশেষজ্ঞরা গ্লকোমাকে কোনও রোগ না বলে চোখের অসুখের সমাহার (group of eye disease) বলতে স্বচ্ছন্দবোধ করেন। গ্লকোমা কেন অদৃশ্য এক অসুখ এবং কী করেই বা এই রোগ নিঃশব্দে আপনার চোখে বাসা বাঁধে তা একটু বিশদ করে বলা দরকার। এই অসুখটি তার প্রাথমিক পর্বে প্রায় উপসর্গবিহীন। অগ্রসর হতে…

আরও পড়ুন

অতিরিক্ত ব্যথার ওষুধ খেলে বাড়বে হৃদরোগের সম্ভাবনা, বলছে সমীক্ষা

ডেনমার্ক: দাঁতে ব্যথা, মাথা ব্যথা, হাঁটু ব্যথা সবেতেই মুশকিল আসান হিসেবে আমাদের রোজকার জীবনের অঙ্গ হয়ে উঠেছে পেইন কিলার। টপ করে গিলে ফেললেই পরবর্তী কয়েক ঘণ্টার জন্য মেলে সাময়িক স্বস্তি। তাই কোনও চিন্তা ভাবনা না করেই ছোটো থেকে বড়ো সব রকম ব্যথাতেই প্রথম সহায় হয় ব্যথা কমানোর ওষুধ। ব্রিটেনের একটি সমীক্ষা থেকে সম্প্রতি জানা গিয়েছে অতিরিক্ত পেইন কিলারের ব্যবহার প্রায় ৩১ শতাংশ বাড়িয়ে দেয় হৃদরোগের সম্ভাবনা।  কোপেনহেগেন বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক বলেছেন, ব্যথা কমানোর জন্য যে প্রচলিত ওষুধ আমরা ব্যবহার করি, তা হৃদরোগের সম্ভাবনাকে বাড়িয়ে দেয় অনেকটা। আইবুপ্রোফেন, ডিক্লোফেনাক ইত্যাদি ওষুধ বেশি ব্যবহার করলে এমন অবস্থা তৈরি হয়, যেখানে হৃদপিণ্ড হঠাৎ রক্ত সঞ্চালন করা…

আরও পড়ুন

ডাক্তারের চেম্বার থেকে: ঋতু পরিবর্তনে গলার ব্যথা

ডাঃ চিরজিৎ দত্ত (নাক-কান-গলা বিশেষজ্ঞ) আবহাওয়া পরিবর্তনের সঙ্গে আসে হাজারো রকমের রোগ। তারই একটি গলা ব্যথা বা ফ্যারিঞ্জাইটিস, ল্যারিনজাইটিস, টনসিলাইটিস। এই রোগগুলি  সাধারণত ঠান্ডা এবং ফ্লু (ইনফ্লুয়েঞ্জা) ভাইরাসের এর মত জীবাণুর সংক্রমণের জন্য হতে পারে। গলা ব্যথার ক্ষেত্রে গলায় শুষ্ক চুলকানি হয় এবং খাবার গিলতে  ও ঢোক গিলতে সমস্যা হয়।  প্রতিটি রোগেরই নিজস্ব কিছু উপসর্গ থাকে। এক্ষেত্রে সাধারণত যেসব লক্ষণ ও উপসর্গ দেখা দেয়: গলা খসখসে হয়, চুলকায় এবং ফুলে যায়। শ্বাস নেওয়ার সময়, কথা বলার সময় এবং ঢোক গেলার সময় ব্যথা অনুভূত হয়। ঠান্ডার কারণে গলা ব্যথা হলে এর পাশাপাশি কাশি, জ্বর, সর্দি, হাঁচি এবং শরীরে ব্যথা হয়। এমনিতে নিরীহ…

আরও পড়ুন

পুরুষের তুলনায় ভারতীয় মেয়েরা ১৩% কম প্রোটিন খান: সমীক্ষা

নয়াদিল্লি: ভারতীয় মহিলা এবং পুরুষদের খাদ্যাভ্যাসের একটি তুলনামূলক সমীক্ষা প্রকাশ করেছে বেসরকারি সংগঠন ‘হেলদিফাইমি’। ১৫ লক্ষ ভারতীয়কে নিয়ে অনলাইনে চালানো হয়েছে সমীক্ষা। তার মধ্যে অর্ধেক মহিলা। ‘হেলদিফাইমি’-এর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আমরা নিয়মিত যে খাবার খাই, তাতে প্রোটিন, ফ্যাট এবং কার্বোহাইড্রেটের অনুপাত হওয়া উচিত ২০: ৩০: ৫০। সমীক্ষা বলছে, ভারতীয় মহিলারা পুরুষদের তুলনায় ১৩ শতাংশ কম প্রোটিন যুক্ত খাবার খান। পুরুষ ও মহিলার খাদ্যাভ্যাসের এই বৈষম্য ভারতের সব অঞ্চলেই কম বেশি বিদ্যমান। তবে উত্তর ও উত্তর-পূর্ব ভারতের রাজ্যগুলোয় অর্থাৎ মণিপুর, অরুণাচল প্রদেশ, জম্মু কাশ্মীর, পঞ্জাবে এই বৈষম্য মারাত্মক রকমের। হেলদিফাইমি-এর সিইও তরুণ বশিষ্ঠ সমীক্ষা প্রসঙ্গে বলেছেন, “প্রোটিনের অভাব থেকে তৈরি হয়…

আরও পড়ুন

ক্লাস টেনের ছাত্র আবিষ্কার করল সাইলেন্ট হার্ট অ্যাটাক বোঝার যন্ত্র

নয়াদিল্লি : ভালো লাগে বলে অষ্টম শ্রেণি থেকেই চিকিৎসাশাস্ত্র নিয়ে পড়াশোনা শুরু করেছিল সে। সব থেকে প্রিয় বিষয় হৃদরোগের চিকিৎসা। কিন্তু চিকিৎসাবিজ্ঞানের পত্র-পত্রিকা কিনে পড়তে অনেক টাকার খরচ। সেই জন্য বাড়ি থেকে এক ঘণ্টারও বেশি দূরে অবস্থিত ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স লাইব্রেরিতে সেই সব পত্রিকা পড়তে যেত। এখন সে দশম শ্রেণিতে। এই বয়সেই আবিষ্কার করে ফেলেছে সাইলেন্ট হার্ট অ্যাটাক নির্ণয় করার যন্ত্র।  কথা হচ্ছে, আকাশ মনোজের। তামিলনাড়ুর হসুরের বাসিন্দা। দশম শ্রেণির ছাত্র। এইটুকু একটা ছেলের হাত ধরে আবিষ্কার হয়ে গেল চিকিৎসাবিজ্ঞানের প্রাণদায়ী একটা যন্ত্র। আকাশের ইচ্ছা, সে দিল্লির অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্স থেকে পড়াশোনা করবে। সাইলেন্ট হার্ট অ্যাটাকের কবলে…

আরও পড়ুন

ডাক্তারের চেম্বার থেকে: অটিজমে হতাশ হবেন না

ডাঃ অঞ্জন ভট্টাচার্য, শিশু বিকাশ বিশেষজ্ঞ তপন আর নন্দার ছেলের বয়স তিন ছুঁই ছুঁই। আদর করে নাম দিয়েছে ঋত্বিক। ডাক নাম বুবুন। বাবা-মা সুন্দর তাই ছেলেকেও বেশ দেখতে। কিন্তু যত দিন যাচ্ছে একটা দুশ্চিন্তার কালো মেঘ ঘিরে ধরছে ওদের দুজনকে। বুবুন কথা বলে না। শুধু তাই নয় বুবুন যেন আর পাঁচটা বাচ্চার থেকেও একটু আলাদা। ডাকলে সাড়া দেয় না। মুখ দিয়ে শব্দ বের করে কিন্ত বাবা মা কাউকেই যেন ঠিক চেনে  না। সকলের কথা মত নিয়ে গেল ডাক্তারবাবুর কাছে। সেদিনই তপন আর নন্দা একটি নতুন মেডিক্যাল টার্ম শুনল। অটিজম। অটিজম কোনো বংশগত  বা মানসিক রোগ নয়, এটা স্নায়ুগত বা মানসিক …

আরও পড়ুন

বেসরকারি হাসপাতালকে নিয়ন্ত্রণ করতে রাজ্যের স্বাস্থ্য বিল এক নজরে

কলকাতা: বেসরকারি হাসপাতালগুলিকে নিয়ন্ত্রণ করতে শুক্রবার বিধানসভায় বিল পেশ করতে চলেছে রাজ্য সরকার। বিলের পোশাকি নাম দি ওয়েস্ট বেঙ্গল ক্লিনিক্যাল এস্টাব্লিসমেন্ট ( রেজিস্ট্রেশন,  রেগুলেশন এন্ড ট্রান্সপারেন্সি)  বিল ২০১৭। ওই বিল অনুযায়ী রাজ্যে একটি রেগুলেটরি কমিশন তৈরি করবে সরকার। দেওয়ানি আদালতের সমান ক্ষমতা দেওয়া থাকবে ওই কমিশনের হাতে। হাসপাতালের গাফিলতিতে কারও মৃত্যু প্রমাণিত হলে মৃতের পরিবারকে ১০ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে বাধ্য থাকবে ওই হাসপাতাল। বড় আঘাতের ক্ষেত্রে ক্ষতিপূরণ হবে ৫ লক্ষ এবং ছোটো আঘাতের ক্ষেত্রে ক্ষতিপূরণ ৩ লক্ষ টাকা। কমিশনের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে দেওয়ানি আদালতে যাওয়া যাবে না। কমিশনের সিদ্ধান্তের ওপর স্থগিতাদেশ দিতে পারবে না কোনো দেওয়ানি আদালত। এই বিল রাজ্য…

আরও পড়ুন

ঠাকুরপুকুর হাসপাতালে ক্যানসার চিকিৎসায় এল অত্যাধুনিক যন্ত্র

ইন্ডিয়ান অয়েল পেট্রোনাস-এর চিফ এক্সজিকিউটিভ অফিসার ভি সতীশ কুমারের (ডান দিকে) সঙ্গে করমর্দন করছেন ইনস্টিটিউটের সেক্রেটারি অঞ্জন গুপ্ত। পাপিয়া মিত্র: নানা ভাষা, নানা মত আর নানা পরিধানের মতো নানা রোগ এসে পড়ছে আমাদের দৈনন্দিন জীবনে। সব কিছুর সঙ্গে আমরা রোগের কথা শুনলে প্রথমেই ভয়ে দশ হাত পিছিয়ে যাই। রোগ যেমন আছে তার পাশাপাশি উপশমের প্রক্রিয়াও চালু করার আপ্রাণ প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন চিকিৎসকেরা। মার্চ পয়লায় সরোজ গুপ্ত ক্যানসার সেন্টার অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউট-এ সংযোজিত হল অত্যাধুনিক ল্যাপারোস্কোপিক ইনস্ট্রুমেন্ট। এখানে যাবতীয় সূক্ষ্মাতিসূক্ষ্ম পরীক্ষার মাধ্যমে বিশেষজ্ঞরা আরও এক ধাপ এগিয়ে জেতে পারবেন চিকিৎসার জগতে। এটিতে লোয়ার ট্র্যাক ইউরোলজি রিসেক্টোস্কোপ, ল্যাপারোস্কোপিক ইনস্ট্রুমেন্ট ও ভ্যালিল্যাব মেক ভেসেল…

আরও পড়ুন

ঠাকুরপুকুর ক্যানসার হাসপাতালের আলোচনাসভায় জায়ান্ট স্ক্রিনে দেখানো হল অস্ত্রোপচার

কলকাতা : লজ্জা-ঘৃণা-ভয়, তিন থাকতে নয়। না, এখন এ সব ভাবার দিন আর নেই। শরীরের যে কোনো জায়গার সামান্য অস্বস্তিটুকু মেনে নিতে নারাজ মানুষ। তবুও কখনও কখনও একটু অবহেলায় অনেক বড়ো ঝুঁকি জীবনে এসে যায়। আর সেই সব সমস্যা কোথায়, কখন, কেন শরীরে এসে যাচ্ছে তা নিয়ে আলোচনাসভা ও শল্যচিকিৎসার সরাসরি সম্প্রচার করা হল সরোজ গুপ্ত ক্যানসার সেন্টার অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউট-এ, লোকে যাকে চেনে ঠাকুরপুকুর ক্যানসার হাসপাতাল নামে। সম্প্রতি ২৪ থেকে ২৬ ফেব্রুয়ারি ঠাকুরপুকুর ক্যানসার হাসপাতালে ‘বার্ষিক রাজ্য শল্যচিকিৎসা সম্মেলন ২০১৭’ অনুষ্ঠিত হয়। ছিলেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রোবটিক সার্জন গারেথ মরিস স্টিফ, মুম্বইয়ের টাটা মেমোরিয়াল হাসপাতালের প্যাঙ্ক্রিয়াটিক ক্যানসার সার্জন শৈলেশ শ্রীখান্ডে…

আরও পড়ুন

ডাক্তারের চেম্বার থেকে: দাঁতে পোকা এড়াতে

ডাঃ অনির্ভান সেনগুপ্ত (দন্ত চিকিৎসক) দাঁতের ক্যাভিটির সমস্যা হল দাঁতে পোকা ধরার সমস্যা। দাঁতের ক্ষয় হয়ে যাওয়া এবং দাঁতে গর্তের সৃষ্টি হওয়ার কারণে খাবার খাওয়ার সময় অনেক যন্ত্রণা পোহাতে হয়। এছাড়াও ক্যাভিটি যদি বেশি হয়ে যায় তাহলে রুট ক্যানেল না করানো ছাড়া উপায় থাকে না। কিন্তু ক্যাভিটির সমস্যা থেকে আমরা চাইলেই মুক্তি পেতে পারি। একটু সতর্কতাই এই সমস্যার সমাধান করতে পারে। আসুন জেনে নিই দাঁতের ক্যাভিটির সমস্যা প্রতিরোধে জরুরি কিছু করণীয়: ১) নিয়মিত ব্রাশ, ফ্লস এবং অ্যালকোহল মুক্ত মাউথওয়াশ দিয়ে মুখ পরিষ্কার রাখুন। দাঁতের পাশাপাশি নজর দিন জিভের দিকেও। নিয়মিত পরিষ্কার রাখুন জিভ। ২) চিনিযুক্ত ক্যান্ডি ও মিষ্টি জাতীয় খাবার যতোটা সম্ভব…

আরও পড়ুন